পুরনো ৫০০ টাকার নোট বিক্রি করে পেতে পারেন ৫-১০ হাজার টাকা! জানুন পদ্ধতি

16
পুরনো ৫০০ টাকার নোট বিক্রি করে পেতে পারেন ৫-১০ হাজার টাকা! জানুন পদ্ধতি

মোদি সরকারের নোট বন্দির সিদ্ধান্তের পর থেকেই ৫০০ টাকার নোট এক ধাক্কায় বাতিল হয়ে যায়। যে কারণে প্রভূত সমস্যার সম্মুখীন হতে হয়েছিল সাধারণ মানুষকে। পুরনো ৫০০ টাকার নোটের বদলে বাজারে আসে নতুন নোট। যার ফলে এই মুহূর্তে আর কারোর সম্ভারে পুরনো ৫০০ টাকার নোট না থাকাই স্বাভাবিক। কিন্তু যদি কালেভদ্রে আপনার কাছে পুরনো সেই ৫০০ টাকার নোট বেঁচে গিয়ে থাকে, তাহলে সেই নোট বিক্রি করেই আপনি ৫-১০ হাজার টাকা পেয়ে যেতে পারেন!

এর জন্য আপনাকে সহায়তা করবে ওল্ড ইন্ডিয়ান কয়েনস ডট কম ওয়েবসাইটটি। oldindiancoins.com ওয়েবসাইটে গিয়ে আপনি আপনার সম্ভারে থাকা ৫০০ টাকার নোট বদলে নিতে পারেন। পেয়ে যেতে পারেন নতুন ৫-১০ হাজার টাকা! তবে এই লেনদেনের ক্ষেত্রে কিন্তু কিছু শর্ত রয়েছে। আপনার সম্ভারে যে ৫০০ টাকার নোট রয়েছে, তার মধ্যে কিছু বিশেষত্ব থাকতে হবে।

বিশেষত্ব বলতে, যদি পুরনো সেই ৫০০ টাকার নোটে সিরিয়াল নম্বর দুইবার ছাপা হয়ে থাকে অথবা নোটের আকার-আকৃতিতে কিছু অস্বাভাবিকতা থাকে, তাহলেই আপনি এই লেনদেনের যোগ্য! আসলে রিজার্ভ ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়া যখন নোট ছাপায় তখন অত্যন্ত সতর্কতার সঙ্গেই নোট ছাপানো হয়ে থাকে। তবে তার মাঝেও থেকে যায় কিছু ভুলভ্রান্তি। যে কারণে হয়তো কখনো কখনো একই নোটে দুইবার সিরিয়াল নম্বর ছাপা হয়ে যায়, অথবা নোটের আকার-আকৃতিতে অস্বাভাবিকতা থেকে যায়।

এই ধরনের নোটগুলি রিজার্ভ ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়া কার্যত বাজারে আসতেই দিতে চায়না। তবে কোনো কারণে সেগুলো যদি বাজারে ছড়িয়ে পড়ে তাহলে সেগুলি ফেরত পাওয়ার জন্য নতুন নতুন অফার দেয় রিজার্ভ ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়া। আপনার কাছে যদি এই ধরনের নোট থাকে তাহলে তার ছবি তুলে সংশ্লিষ্ট ওয়েবসাইটে পোস্ট করে দিন। বিক্রেতা হিসেবে নিজের নাম অবশ্যই উল্লেখ করবেন। যিনি আপনার নোটটি কিনতে চাইবেন, তিনি সেখান থেকেই আপনার সঙ্গে যোগাযোগ করবেন।