“ইয়াশ” প্রভাব পড়বে না কলকাতায়! স্বস্তির বাণী শোনালো আবহাওয়া দপ্তর

23

গতবছর করোনাকালে কলকাতা এবং তার পার্শ্ববর্তী অঞ্চল আম্ফান নামক ভয়ঙ্কর ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাবে রীতিমতো বিপর্যস্ত হয়ে গিয়েছিল। ঘূর্ণিঝড়ে গাছ উপড়ে পথঘাট বন্ধ হয়ে, বিদ্যুতের খুঁটি উপড়ে এক সপ্তাহেরও বেশি সময় ধরে বিদ্যুৎহীন, পানীয় জল বিহীন কলকাতায় কোন রকম ভাবে দিন যাপন করতে বাধ্য হয়েছিলেন তারা। চলতি বছরেও “ইয়াস” আছড়ে পড়তে চলেছে উপকূলবর্তী অঞ্চলে।

যার ফলে স্বভাবতই পুরনো সেই দিনের স্মৃতি কলকাতাবাসীর মানসপটে ভেসে উঠছে। তারা আতঙ্কিত এই ভেবে যে ঘূর্ণিঝড় ইয়াস আম্ফান এর মত তান্ডব চালাবে না তো? কি বলছেন আবহাওয়া দপ্তরের বিশেষজ্ঞরা? আলিপুর আবহাওয়া দপ্তর এর তরফ থেকে অবশ্য স্বস্তির বাণী শোনানো হল কলকাতা বাসীর জন্য। চলতি দফার ঘূর্ণিঝড়ে কলকাতায় তেমন কোনো বিশেষ ক্ষতি হবে না।

কলকাতার একেবারে কান ঘেঁষে বেরিয়ে যাবে ঘূর্ণিঝড় ইয়াস। তবে উপকূলবর্তী জেলা গুলি যেমন পূর্ব মেদিনীপুর এবং দক্ষিণ 24 পরগনা অবশ্য ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাব কাটিয়ে উঠতে পারবে না। এই দুই জেলায় ঘূর্ণিঝড় আছড়ে পড়ার সম্ভাবনা রয়েছে বলে জানানো হয়েছে। গতবছরের আম্ফান এবং চলতি বছরের ইয়াস ঘূর্ণিঝড়ের গতিপথ কিন্তু সম্পূর্ণ আলাদা বলেই যাচ্ছেন আবহাওয়া বিশেষজ্ঞরা।

তবে আলিপুর আবহাওয়া দপ্তরের বিশেষজ্ঞরা অবশ্য নিশ্চিতভাবে কিছু জানাতে পারছেন না। সবটাই নির্ভর করছে সম্ভাবনার উপর। অতএব এই মুহূর্তে ঘূর্ণিঝড় যে গতি পথ ধরে এগিয়ে চলেছে, আগামী কয়েক ঘন্টার মধ্যে সেই গতিপথ বদলে যেতেও পারে। তাই আগে থেকেই নিশ্চিত ভাবে কিছু বলা যাচ্ছে না।