যেকোনো অবস্থায় মনের ভাব প্রকাশ করতে অনেক বেশি সক্ষম মহিলারা, গবেষণার রিপোর্ট

3
যেকোনো অবস্থায় মনের ভাব প্রকাশ করতে অনেক বেশি সক্ষম মহিলারা গবেষণার রিপোর্ট

যে কোন ক্ষেত্রে মনে করা হয় যে পুরুষদের থেকে মহিলারা অনেক বেশী আবেগপ্রবন হয়। যেকোনো অবস্থায় মনের ভাব প্রকাশ করতে অনেক বেশি সক্ষম মহিলারা। একজন পুরুষের ক্ষেত্রে যে কোনো সময়ে নিজের মনের ভাব সঠিকভাবে ব্যক্ত করতে পারা যায় না। নারীদের ক্ষেত্রে, ”কথায় কথায় চোখে জল চলে আসে” এই কথাটি যেমন প্রযোজ্য, তেমনি ছেলেদের ক্ষেত্রে, ”ছেলে বলে কাঁদতে নেই” সমানভাবে প্রযোজ্য। সম্প্রতি আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত একটি গবেষণায় দেখা গিয়েছে যে, যে মানুষেরা বেশি কাঁদে, অথবা যাদের চোখে বেশি জল চলে আসে তাদের মধ্যে রয়েছে কিছু বৈশিষ্ট্য

কখনো জীবনে বড়সড় ধাক্কা অথবা কষ্ট পেলে সেটা চোখের জলের মাধ্যমে বের করে দিয়ে নিজেদের কষ্ট কম করতে চেষ্টা করে এই ধরনের মানুষ। এতে তাদের মনের চাপ কম পড়ে।নিজেদের চাপ মুক্ত করার জন্য খুব সহজেই কেঁদে ফেলতে পারে এই মানুষ।যারা সহজে কাঁদতে পারে, তারা আদতে খুবই সাহসী হন। মনোবিদদের মতে, কান্না চেপে রেখে নিজেকে দুর্বল প্রতিপক্ষ করতে চান না অনেকে। কিন্তু সেটি আসলে নিজেকে ভিতু প্রমাণ করা হয়, এটা কিন্তু অনেকেই জানেন না। সুখের সময় যেমন আনন্দ পাওয়া যায়, তেমনি দুঃখের সময় চোখের জল ফেলা যায়। এতে লজ্জা পাবার কিছু নেই। যারা এই মত বিশ্বাস করেন, যে চোখের জল ফেলতে দ্বিধা নেই, তারা আসলে খুবই সাহসী।

এই ধরনের মানুষের জীবনের পথে অনেক সহজ ভাবে চলতে পারেন। এরা জীবনে সমতা বজায় রাখতে সক্ষম হন। যে কোনো কঠিন পরিস্থিতির সময় এরা চোখের জল ফেলে নিজেকে হালকা করে নিতে পারেন। কষ্ট পেয়েও সেটি মনের মধ্যে চেপে রাখা অথবা চোখের জল না ফেলার মধ্যে কোন রকম সাহসিকতা নেই। প্রয়োজনে চোখের জল ফেলতে পারলে তা পরবর্তীকালে শরীরের উপর প্রভাব ফেলতে পারে।