২২.৬৫ লাখ টাকা দিয়ে কালো ঘোরা কিনে হয়ে গেল লাল! জানুন তারপর

17
২২.৬৫ লাখ টাকা দিয়ে কালো ঘোরা কিনে হয়ে গেল লাল! জানুন তারপর

শখের বশে ঘোড়া কেনা, কিন্তু তাই বলে এত বড় প্রতারণা? পাঞ্জাবের এক ব্যক্তির সাথে এমনই একটি প্রতারণা হলো সম্প্রতি। ২২.৬৫ লাখ টাকার পরিবর্তে এক ঘোড়া ব্যবসায়ীর কাছ থেকে একটি কালো ঘোড়া ক্রয় করেন তিনি। কিন্তু সেটা আদতে কালো নয়। কারণ সেই ঘোড়ার গায়ে কালো রং করা , ঘোড়ার মধ্যে কালো রঙ সচরাচর দেখা যায় না। তাই এর চাহিদা তুঙ্গে ও মূল্যও আকাশছোঁয়া।

সাঙ্গারুর জেলার সনাম শহরের রমেশ কুমার অভিযোগ করেছেন যে ঘোড়া ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে তিনি প্রতারিত হয়েছেন। শুধু কিন্তু তাই নয়, সেই ব্যক্তি আরও দাবি করেছেন সনাম শহরের যতিন্দর পাল সিং, সেখন এবং লখবিন্দর সিং এবং লাছড়া খান ওরফে গোগা খানও কুমারকে এই মিথ্যা দাবিটি বিশ্বাস করানোর জন্য এই প্রতারণা মূলক কালো ঘোড়া কেনার চুক্তিটি সই করানোর সঙ্গে যুক্ত ছিল বলে জানা গিয়েছে।

ঘোড়ার মালিক জানায়, ঘোড়াকে স্নান করানোর সময় কালো রং উঠে গিয়ে ভেতর থেকে লাল রং ফুটে ওঠে। যা দেখে স্বাভাবিকভাবেই অবাক হয়ে যান তিনি। ইতিমধ্যেই তিনি ব্যবসায়ীদের ৭.৬ লক্ষ টাকা দিয়ে দিয়েছেন এবং বাকি টাকার জন্য চেক পর্যন্ত দিয়েছেন তিনি। ইতিমধ্যেই পুলিশের কাছে অভিযোগ জানানো হলে, পুলিশ তাদের তরফ থেকে তদন্ত শুরু করেছে।

এদিকে আবার সম্প্রতি ঘোড়া নিয়ে আরেকটি ঘটনা উঠে এসেছে সেটা ঘটেছে পশ্চিমবঙ্গে। গফুর আলী মোল্লা নামে এক ঘোড়ার মালিক দক্ষিণ দুর্গাপুর থেকে নেত্রার দূরত্ব ২৩ কিমি, পুরো পথ ঘোড়া ছুটিয়ে না আসার পরিবর্তে নিজের ঘোড়াকে আরাম দেওয়ার জন্য ট্রেনে চাপিয়ে নিয়ে এসেছে। যেটা রেলওয়ে আইনের অধীনে একটি বিশাল দন্ডনীয় অপরাধ। তার ঘোড়ার আরাম হয়েছে ঠিকই কিন্তু তার কিন্তু কোনোভাবেই সেই আরামের দিক পর। প্রমাণিত হয় নি।।