বাংলায় কেন আট দফা ভোট? নির্বাচন কমিশনের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের হলো সুপ্রিম কোর্টে

13
বাংলায় কেন আট দফা ভোট? নির্বাচন কমিশনের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের হলো সুপ্রিম কোর্টে

খানিকটা নজিরবিহীনভাবেই বাংলার আসন্ন একুশের বিধানসভা নির্বাচন হবে আট দফায়! এই নিয়ে নির্বাচন কমিশনের বিরুদ্ধে ক্ষোভ প্রকাশ করেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বাংলায় আট দফা নির্বাচন হবে কেন? কোনো দলকে সুবিধা দেওয়ার জন্য এমন সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে কমিশন? প্রশ্ন তুলেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এবার নির্বাচন কমিশনের এমন সিদ্ধান্তের পরিপ্রেক্ষিতে মামলা দায়ের হলো সুপ্রিম কোর্টে।

আইনজীবী মনোহর লাল শর্মা সম্প্রতি সুপ্রিম কোর্টে এই মর্মে একটি মামলা দায়ের করেছেন। মঙ্গলবার সেই মামলাটি সুপ্রিম কোর্টে গৃহীত হয়েছে। আট দফা নির্বাচনের সিদ্ধান্তের পরিপ্রেক্ষিতে প্রশ্ন তোলার পাশাপাশি একুশের লড়াইয়ে বিজেপি যেভাবে “জয় শ্রী রাম” স্লোগানটিকে রাজনৈতিকভাবে ব্যবহার করছে, সেদিকেও উচ্চ আদালতের দৃষ্টি আকর্ষণ করেছেন তিনি।

মনোহর লাল শর্মা আদালতে প্রশ্ন তুলেছেন, তামিলনাডু, কেরল এবং কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল পুদুচেরিতে এক দফা এবং অসমে তিন দফায় নির্বাচন সম্পন্ন হচ্ছে। তাহলে পশ্চিমবঙ্গের ক্ষেত্রে ব্যতিক্রম হচ্ছে কেন? এই মামলায় উল্লেখ করা হয়েছে, পশ্চিমবঙ্গে জঙ্গী হামলার কোনো খবর নেই, যুদ্ধের পরিস্থিতিও সৃষ্টি হয়নি। তাহলে এই রাজ্যে আট দফা নির্বাচনের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে কেন?

নির্বাচন কমিশনের এই সিদ্ধান্তে ভারতীয় সংবিধানের ১৪ নম্বর ধারা অর্থাৎ সাম্যের অধিকার লঙ্ঘিত হচ্ছে বলেই দাবি করেছেন আইনজীবী। পাশাপাশি, ধর্মীয় স্লোগানকে হাতিয়ার করে রাজনীতিতে অসন্তোষ ছাড়ানোর প্রচেষ্টার পরিপ্রেক্ষিতে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ এবং বিজেপি নেতা শুভেন্দু অধিকারীর বিরুদ্ধে সিবিআইয়ের মামলা দায়ের করা উচিত! এমনও দাবি তুলেছেন ওই আইনজীবী।