হাজার যত্ন করলেও বাড়ির তুলসী গাছ শুকিয়ে যায় কেন? জানুন কারন

70
হাজার যত্ন করলেও বাড়ির তুলসী গাছ শুকিয়ে যায় কেন? জানুন কারন

প্রত্যেক বাড়িতে তুলসী গাছ থাকা খুবই শুভ বলে মনে করা হয়। তুলসী মঞ্চ প্রত্যেকদিন সন্ধ্যেবেলা প্রদীপ জ্বালানোর বাঙালি বাড়ির একটি অন্যতম রীতি। অনেকেই নিয়মিত যত্ন করেন এবং পুজো করেন তুলসী গাছ কে। কিন্তু কখনো হয়তো লক্ষ্য করে দেখেন নি যে, পরিবারে কোনো সমস্যা হলে তার প্রথম প্রভাব কিন্তু ঘরে তুলসী গাছের উপরে। হাজার যত্ন করলেও তখন তুলসী গাছ আস্তে আস্তে শুকিয়ে যেতে শুরু করে দেয়।

কেন এই রকম হয় জেনে নিন তার কারণগুলো

১) পুরান অথবা শাস্ত্র মতে, তুলসী দেবী লক্ষ্মীর প্রতীক। বাড়িতে কোনো রকমের যদি অশান্তি অথবা দারিদ্র থাকে তাহলে সেই বাড়িতে তুলসী গাছ নষ্ট হয়ে যায়।

২) জ্যোতিষশাস্ত্র মতে তুলসী গাছ শুকিয়ে যাওয়ার প্রধান কারণ হলো বুধ গ্রহ। এই গ্রহের রং সবুজ। অনেকে মনে করেন যে সমস্ত গাছ হলো এই গ্রহের কারক। তাই সংসারে যদি কোনো অশুভ প্রভাব পড়ে তাহলে সবার আগে তার লক্ষ্য করা যায় বুধ গ্রহ এবং তার কারকের ওপর। সেই অনুযায়ী তুলসী গাছ সকলের আগে শুকিয়ে যায়।

৩) তুলসী গাছ নীরবে একজন চিকিৎসকের কাজ করে। ডাক্তারবাবু যেমন চিকিৎসা করেন ঠিক তেমনই তুলসী গাছ ও সমস্যা নেগেটিভ এনার্জি সরিয়ে দিয়ে পজিটিভ এনার্জি নিয়ে আসতে সাহায্য করে বাড়িতে। ঘরের সমস্ত দোষ ত্রুটি মুক্ত করতে তুলসী গাছ সাহায্য করে এবং অনেক সময় রক্ষা করার হেতু তুলসী গাছ শুকিয়ে যায় এবং মারা যায়।

৪) মাত্রাতিরিক্ত পারিবারিক কলহ যদি থাকে তাহলে রান্না ঘরের পাশে তুলসী গাছ লাগাতে পারেন। ছেলে যদি প্রচন্ড পরিমানে যদি হয় তাকে যদি কোনভাবে বশে না আনতে পারেন আপনি তাহলে ঘরের পূর্বমুখী জায়গায় রেখে দিতে পারেন তুলসী গাছ। সমস্ত অবিবাহিত মেয়েরা যদি বাড়ির অগ্নিকোণে তুলসী চারা লাগিয়ে প্রত্যেকদিন পুজো করে তাহলে বিয়ের বাধা দূর হয়ে যায়।

৫) ব্যবসায় মন্দা? বাড়ির দক্ষিণ-পশ্চিম দিকে তুলসী গাছ লাগিয়ে শুক্রবার হাতে কাঁচা দুধ ঢেলে দিন। কোন বিবাহিতাকে মিষ্টি কিছু খেতে দিন, নিয়মিত এই কাজ করলে আপনার মন্দা কেটে যাবে।