কার প্রেমে মজেছেন অভিনেত্রী অদিতি রাও হায়দারি, জল্পনা তুঙ্গে

12
কার প্রেমে মজেছেন অভিনেত্রী অদিতি রাও হায়দারি, জল্পনা তুঙ্গে

বিটাউনের গ্ল্যামারাস অভিনেত্রীদের মধ্যে অন্যতম হলেন অদিতি রাও হায়দারি। তাঁর কেরিয়ার নিয়ে নতুন করে বলার কিছু নেই। এই মুহুর্তে সঞ্জয়লীলা বনসালীর আগামী ছবি Heeramandi-তে কাজ করছেন অদিতি। তাঁর প্রসঙ্গে বলতে গেলে প্রথমেই বলতে হয় তাঁর গুপ্ত প্রেম কাহিনীর কথা। যা ইন্ডাস্ট্রির ভিতরে বাইরে কানাঘুষো শোনা যেত। রং দে বসন্তীর অভিনেতা সিদ্ধার্থের সঙ্গে তাঁর প্রেম নিয়ে মাঝেমধ্যেই জল্পনা তুঙ্গে উঠত।

যদিও দুজনের কেউই এই ব্যাপারে প্রকাশ্যে মুখ খোলেন নি। তবে ২৮ অক্টোবর অদিতির জন্মদিনে সিদ্ধার্থ-অদিতি প্রথমবার একসঙ্গে সোশাল মিডিয়ায় ছবি পোস্ট করতেই প্রেমের গুঞ্জন যে সত্যি তা প্রমাণ হয়েছে। অদিতির ৩৬ তম জন্মদিনে সিদ্ধার্থ নিজের ইনস্টাগ্রাম প্রোফাইলে অদিতির সঙ্গে ছবি পোস্ট করে তাঁকে ‘প্রিন্সেস অফ মাই হার্ট’ বলে সম্বোধন করার সাথে সাথেই তাঁদের ভালোবাসা এবং শুভেচ্ছাবার্তা পাঠিয়েছেন নেটিজেনরা। পোস্ট করা ছবিতে সিদ্ধার্থ ক্যাপশন দিয়েছেন, ‘তুমি অমনই থাকো, কখনও বড় হয়ে যেও না’।

গত বছর Maha Samundram ছবির সেট থেকেই সিদ্ধার্থ আর অদিতির প্রেমকাহিনী শুরু হয় বলে জানা গিয়েছে। যদিও এ প্রসঙ্গে ইন্ডাস্ট্রির অন্দরের লোক ছাড়া আর কেউই সেভাবে জানত না। চণ্ডীগড়ে রাজকুমার রাও আর পত্রলেখার বিয়েতেও একসঙ্গে হাজির হয়েছিলেন এই লাভবার্ডস।

ছবিতে দেখা যাচ্ছে, হালকা বেগুনি রংয়ের ড্রেসে সেজেছেন অদিতি। সিদ্ধার্থের কাঁধে হাত রেখে সেলফিতে পোজ দিয়েছেন। মনের মানুষের জীবনের যাতে সব ইচ্ছে পূরণ হয় অদিতির জন্মদিনে তাঁর প্রেমিক সেই কামনাই করেছেন।

অদিতির সঙ্গে সিদ্ধার্থের প্রথম ছবি দেখে খুশির বাঁধ ভেঙেছে ইন্ডাস্ট্রির বেশ কিছু বন্ধুর। ভিডিও জকি Maria Goretti এই পোস্টের কমেন্টে লিখেছেন, ‘You guys’। অন্যদিকে অভিনেতা নকুল মেহতা এবং জাহির ইকবাল এই তারকা জুটির ছবিতে হার্ট ইমোজি দিয়েছেন।

শুধু তাই নয়, প্রথম বারের জন্য সিদ্ধার্থ এবং অদিতিকে একসঙ্গে দেখে খুশিতে ডগমগ তাঁদের ভক্তরা। কেউ লিখেছেন, “তোমাদের দুজনকে খুব সুন্দর লাগছে”। এক নেটিজেন আবার মজা করে লিখেছেন, “বউদি পেয়ে গিয়েছেন সিদ্ধার্থ”। অন্য আর একজন লিখেছেন, “তোমাদের দেখে আমার হৃদয় আনন্দে নেচে উঠছে।” প্রথম বার তারকা জুটির ছবি প্রকাশ্যে দেখে নেটপাড়ার এক সদস্য জানতে চেয়েছেন, “তোমরা কি বিয়ে করছ?”