করোনার টিকা নিতেই চাইছেন না কত শতাংশ মানুষ? দেখুন গবেষণার রিপোর্ট

6
করোনার টিকা নিতেই চাইছেন না কত শতাংশ মানুষ? দেখুন গবেষণার রিপোর্ট

করোনার কবলে পড়ে বহু মানুষের প্রাণ বিসর্জন হয়েছে। এই রোগের কারণে বহু মানুষ অসুস্থ হয়ে পড়েছেন। যুদ্ধকালীন তৎপরতায় আনা হয়েছে করোনার ভ্যাকসিন। নীতি আয়োগ ও স্বাস্থ্যমন্ত্রক জানিয়েছে দুটি টিকাই ১০০ শতাংশ সুরক্ষিত। নোবেলজয়ী বিজ্ঞানী ভেঙ্কটরমন রামাকৃষ্ণন মনে করেন, ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালের সম্পূর্ণ তথ্য হাতে না-আসা পর্যন্ত সেই টিকা ভরসাযোগ্য নয়। টিকা নেওয়ার পর কী ধরনের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া হচ্ছে, তা আন্তর্জাতিক জার্নালে প্রকাশ করা প্রয়োজন।

সরকারের তরফ থেকে জানানো হয়েছে প্রথমে ৩ কোটি স্বাস্থ্যকর্মীকে এই ভ্যাকসিন দেওয়া হবে। তারপরে ভ্যাকসিন পৌঁছে দেওয়া হবে সাধারণ মানুষের কাছে। তবে এরই মাঝে কেউ কেউ এই ভ্যাকসিন নিতে অনিচ্ছা প্রকাশ করেছে।

সম্প্রতি আহমেদাবাদ বিশ্ববিদ্যালয়ের পড়ুয়াদের একটি অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বিশেষজ্ঞ ভেঙ্কটরমন রামাকৃষ্ণন। সেখানে তিনি বলেছেন এই টিকার সম্পূর্ণ ট্রায়ালের তথ্য হাতে না আসা পর্যন্ত এই টিকা ভরসাযোগ্য নয়। এই টিকার পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া কার কার মধ্যে কি হতে চলেছে তার সম্পূর্ণ তথ্য একটি আন্তর্জাতিক জার্নালে প্রকাশ করা প্রয়োজনীয়।

আমার সাধারন মানুষও এটি কার ওপর ভরসা করতে পারছেন না। Yougov এর তরফ থেকে সাধারণ মানুষদের ওপর একটি সমীক্ষা করা হয়েছে। মূলত শহর অঞ্চলকে কেন্দ্র করেই এই সমীক্ষা চালানো হয়েছে। হি সমীক্ষাতে দেখা যাচ্ছে ৬৮ শতাংশ মানুষ এখনই টিকা নিতে ইচ্ছা প্রকাশ করলেও ৩২ শতাংশ মানুষ এখনই টিকা নিতে অনিচ্ছুক। আবার এই ৬৮ শতাংশ মানুষের মধ্যে একটা বড় ধরনের অংশের মানুষ টিকার পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া নিয়ে ভয় পাচ্ছেন। ৪১ শতাংশ মানুষ টিকা নেওয়ার আগে কিছুমাস অপেক্ষা করতে ইচ্ছুক। ৩৩ শতাংশ মানুষ টিকা নেবার সুযোগ পাওয়া সাথে সাথেই টিকা নিতে ইচ্ছুক।

সমীক্ষায় দেখা যাচ্ছে ১৩ শতাংশ মানুষ নিজের থেকে টিকা নিতেই চাইছেন না। জ্যোতি টিকা বাধ্যতামূলক করা হয় তবে তারা টিকা গ্রহণ করবে আবার অন্যদিকে ১১ শতাংশ মানুষ মনে করছেন কর্মস্থল থেকে টিকা বাধ্যতামূলক করলে তবেই তারা টিকা গ্রহণ করবেন। আবার বিদেশের তৈরি টিকার থেকে দেশীয় টিকাতেই ভারতের মানুষজন বেশি ভরসা করছেন। প্রায় ৫৫ শতাংশ মানুষ বলেছেন তারা ভারতের টিকাই নিতে চান।

পরিশেষে আসি টিকার মূল্য নিয়ে। প্রায় ৫০ শতাংশ মানুষ মনে করছেন সরকারের উচিত এই করোনার টিকা বিনামূল্যে বিতরন করা। ৩৬ শতাংশের কথায় উচ্চবিত্তদের টিকার খরচ সরকার বহন না করলেও অন্তত গরিবদের টিকার খরচ সরকারেরই বহন করা উচিত। ১৪ শতাংশ মানুষ মনে করেন যে প্রতিটি মানুষের টিকার খরচ তাদের নিজেদেরই বহন করা উচিত।