এ আবার কেমন পেশা? চুইংগাম চিবিয়েই টাকা উপার্জন করেন এক মহিলা

11
এ আবার কেমন পেশা? চুইংগাম চিবিয়েই টাকা উপার্জন করেন এক মহিলা

আজব পৃথিবীর আজব ঘটনা। এই আজব পৃথিবীতে প্রতিনিয়ত আজব আজব ঘটনা ঘটে চলেছে, যার মধ্যে কিছু ঘটনার সম্মুখীন আমরা হয়তো সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে প্রতিনিয়ত হয়ে থাকি, যেগুলো একদিকে হাসায় আবার পাশাপাশি অবাক করে তোলে। এরকমই এক আজব কাজের নিদর্শন দেখা গেল একটি ভিডিওর মাধ্যমে।

চুইংগাম যেটা আমরা হয়তো মাঝে মাঝে এই খেয়ে থাকি কিন্তু তাই বলে চুইংগাম চেবানোকে পেশা হিসেবে বেছে নেওয়া এ আবার কেমন পেশা? শুধু পেশা বললেই ভুল হবে বরং এটা নাকি টাকা উপার্জন করার একটি রাস্তা। চুইংগাম চিবিয়ে প্রত্যেক মাসে আয় ৬৭ হাজার টাকা করেন একটি মহিলা।

ঘটনাটি জার্মানির একটি ঘটনা যে এই কাজটিকে পেশা হিসেবে বেছে নিয়েছেন তার নাম জুলিয়া ফোরাট। এবার আসা যাক আসল কথাতে। ছোটবেলা থেকে জুলিয়া চুইংগাম খেতে ভালবাসতেন এবং চুইংগাম খাওয়ার কথা মাথায় রেখে চুইংগামকে বড় বড় বেলুনের মতো ফুলানোর কাজে তিনি দক্ষ হয়ে যায়।

চুইংগামকে একসঙ্গে খেয়ে সেটা দিয়েই বড় আকারের বেলুন তৈরি করেন তিনি। মাসে এই চুইংগাম কেনার জন্য টাকা খরচ করতে হয় ৪৮০ টাকা। মাত্র ৪৮০ টাকা খরচ করে তিনি আয় করেন বিরাট অংকের টাকা।

এখন প্রশ্ন উঠতেই পারে চুইংগাম চিবিয়ে শুধুমাত্র আয় করা যায়? এটা আবার কিভাবে সম্ভব? ঘটনাটি হল ,জুলিয়া চুইংগাম চিবিয়ে সেটা কে ফুলিয়ে তার ভিডিও রেকর্ড করে সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করেন যা মুহুর্তের মধ্যে ভাইরাল হয়ে যায়।

ইতিমধ্যেই তিনি অনেক স্টার পেয়েছেন যার কারণে তিনি জনপ্রিয়তা অর্জন করে ফেলেছেন। চুইংগাম দিয়ে বেলুন বানাতে তিনি দক্ষ হয়ে উঠেছেন। নেটিজেনরা তার এই ভিডিও দেখতে ভীষণ পছন্দ করেন এবং ভরে যায় তার ভিডিওতে লাইক কমেন্টের পাহাড়। জুলিয়ার এক বন্ধু জানান, জুলিয়া পরিকল্পনা করেছিল ভিডিও বানানোর তবে এই চুইংগাম জুলিয়ার ভাগ্যটাই বদলে দেবে তা হয়তো ভাবতে পারেনি জুলিয়া।