কোন ধরনের বিনিয়োগে আপনার ভবিষ্যৎ জীবনকে সুরক্ষিত করতে পারবেন? দেখে নিন

15
কোন ধরনের বিনিয়োগে আপনার ভবিষ্যৎ জীবনকে সুরক্ষিত করতে পারবেন? দেখে নিন

ভবিষ্যতের জীবনকে সুরক্ষিত করার জন্য অত্যন্ত জরুরী, সঞ্চয় করা। আপনি যে কষ্ট করে উপার্জন করছেন সেই টাকাটা যাতে ভবিষ্যতেও আপনাকে সুরক্ষিত রাখতে পারে সেইজন্যেই, আপনি চান নানা জায়গায় নানা ভাবে বিনিয়োগ করতে, যাতে সেই বিনিয়োগের মাধ্যমে আপনি ভবিষ্যতে চাকরি থেকে অবসর নেয়ার পর নিশ্চিতভাবে জীবন কাটাতে পারেন। বিনিয়োগ করার ক্ষেত্রে সকলের সব রকম ধারনা থাকে না। আপনি যদি বিনিয়োগ করতে চান এবং ভবিষ্যতে একটি সুরক্ষিত জীবন কাটাতে চান তাহলে অবশ্যই আপনার বিনিয়োগ করা উচিত মিউচুয়াল ফান্ডে।

ভালোমতো বিনিয়োগ করতে গেলে আপনাকে যেটা প্রথমেই করতে হবে সেটা হচ্ছে সিস্টেমিক ইনভেস্টমেন্ট প্ল্যান। তবে কোন মিউচুয়াল ফান্ডটা আপনার পক্ষে ভালো সেটাই আপনাকে বেছে নিতে হবে। সবথেকে বেশি মিউচুয়াল ফান্ড আপনার হতে পারে ফার্মা মিউচ্যুয়াল ফান্ডগুলোর যেখানে আপনি ৫০% রিটার্ন পাবেন মিউচুয়াল ফান্ড থেকে। মিউচুয়াল ফান্ডগুলি হল সেক্টরভিত্তিক ইকুইটি মিউচুয়াল। ব্যাংকিং ফান্ডের মতই হলো ফার্মা মিউচুয়াল ফান্ডগুলি। চলতি সবথেকে বেশি লাভজনক ফার্মা মিউচুয়াল ফান্ডগুলি হল, নিপন ইন্ডিয়া ফার্মা, টাটা ইন্ডিয়া ফার্মা এবং হেলথকেয়ার এবং সাথে রয়েছে এসবিআই হেল্প কেয়ার অপরচুনিটিস।

ফার্মা মিউচুয়াল ফান্ড গুলি করোনার মতো অতি মারি সময়ও ৫০ শতাংশেরও বেশি রিটার্ন হিসেবে দিয়েছে। বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন যে ২০২১ সালের ৩ রা এপ্রিল পর্যন্ত নিপন ইন্ডিয়া ফার্মা প্রায় ৭৩ শতাংশেরও বেশি রিটার্ন দিয়েছে। এখন প্রশ্ন হচ্ছে ফার্মা মিউচুয়াল ফান্ড এখনো কি সেরকমই লাভজনক ? লেডেরআপ ওহেলথ ম্যানেজমেন্ট প্রাইভেট লিমিটেডের এমডি রাঘবেন্দ্র নাথ বলেন যে “দু’বছরে মুনাফার ক্ষেত্রে এবং রিটার্ন করার ক্ষেত্রে ফার্মা মিউচুয়াল ফান্ড সবথেকে বেশি এগিয়ে, কিন্তু কোন এক ফান্ডে যখন বিনিয়োগ করা হয় সেটা অবশ্যই কম বেশি ঝুঁকিপূর্ণ হয়। মুনাফা সব সময় সারা বছর এক থাকেনা, ওঠানামা করে।

অতএব আপনি যদি বিনিয়োগের ক্ষেত্রে ঝুঁকি সম্পর্কে জেনে যান, তবে আপনি বেছে নিতে পারবেন যেকোনো একটি ফার্মা মিউচুয়াল ফান্ড। এখন প্রশ্ন উঠেছে যে, গত বছরে ফার্মা মিউচুয়াল ফান্ড ভালো রিটার্ন দিয়েছে বলে কী এ বছরেও সেই একই ভালোভাবে রিটার্ন দিতে পারবে? এরকম প্রসঙ্গে এমডি রবীন্দ্রনাথ বলেন যে, “সাম্প্রতিককালে যে খাতে বিনিয়োগ করা হচ্ছে সেটা যথেষ্ট প্রবৃদ্ধি অর্জিত হয়েছে। এরকম পরিস্থিতিতে তাই এখানে বিনিয়োগ করলে লাভজনক হবে।”

বিশেষজ্ঞরা বলেছেন যে, যেহেতু বর্তমানকালে ওষুধের চাহিদা অনেক বেশি বাড়ছে এবং আগামীদিনেও বাড়বে। ভারত হলো বিশ্বের ওষুধের বাজারের মধ্যে তৃতীয় তম স্থানে, সেই জন্য যদি ওষুধের সংস্থা গুলিতে বিনিয়োগ করা হয় তাহলে মুনাফা যথেষ্ট বৃদ্ধি পাবে এবং রিটার্নও ভালো পাওয়া যাবে।