বাংলা থেকে বেরিয়ে অন্যত্র কাজ করার অভিজ্ঞতা কেমন? জানালেন এই বাঙালি অভিনেতা-অভিনেত্রীরা

17
বাংলা থেকে বেরিয়ে অন্যত্র কাজ করার অভিজ্ঞতা কেমন? জানালেন এই বাঙালি অভিনেতা-অভিনেত্রীরা

বাঙালি অভিনেতারা এখন সারা ভারত বর্ষের সিনে ইন্ডাস্ট্রি কাঁপিয়ে বেড়াচ্ছেন। বাংলার বহু বলিষ্ঠ অভিনেতা এবং অভিনেত্রীই বলিউডে কাজ করার সুযোগ পেয়েছেন। টোটা রায়চৌধুরী, পরমব্রত চ্যাটার্জী, যীশু সেনগুপ্ত, পাওলি দামের নাম এদের মধ্যে উল্লেখযোগ্য। বাংলা ছেড়ে বেরিয়ে অন্যত্র কাজ করার অভিজ্ঞতা কেমন? জানালেন বাংলার এই তাবড় তাবড় অভিনেতা-অভিনেত্রীরা।

অভিনেত্রী পাওলি দাম মনে করেন আঞ্চলিক অভিনেতা-অভিনেত্রীরা বিশেষ করে বাংলার অভিনেতা-অভিনেত্রীরা তাদের অভিনয়ের বহুমুখীতার জন্য জনপ্রিয় হয়ে উঠেছেন। উদাহরণস্বরূপ তিনি বললেন, এখন প্যান ইন্ডিয়া দেশের প্রতিটি প্রান্ত থেকে অভিনেতা-অভিনেত্রীদের ডাকে। গুজরাটি অভিনেতা প্রতীক গান্ধীর উদাহরণ তুলে ধরে তিনি বলেন “স্ক্যাম ১৯৯২”তে অসাধারণ অভিনয় করে সকলের কাছে জনপ্রিয় হয়ে উঠেছেন তিনি।

বাংলা চলচ্চিত্র জগতের অন্যতম অভিনেতা টোটা রায়চৌধুরী জানালেন, বাঙালি অভিনেতা অভিনেত্রীদের মধ্যে একটি স্বতন্ত্রতা রয়েছে। যে কারণে জাতীয় স্তরে অভিনয় করতে তাদের কোনো অসুবিধা হয় না। দেশের যেকোনো প্রান্তের পরিচালকেরা তাই বাঙালি অভিনেতা-অভিনেত্রীদের মধ্যে সঠিক চরিত্রটিকে খুঁজে পান। তবে এ ক্ষেত্রে অবশ্য পরিচালকের ভূমিকাও যথেষ্ট বলে তিনি মনে করেন।

বাংলার অন্যতম সেরা অভিনেতা পরমব্রত চট্টোপাধ্যায়কে বহু হিন্দি ছবিতে গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রে অভিনয় করতে দেখা গিয়েছে। বলিউডের কাজকে বেশ আকর্ষণীয় এবং উপভোগ্য বলে মনে হয়েছে তার। “পরী”, “বুলবুল” এবং বর্তমানে “আকর্ষ খুরানা”র যে চরিত্রটি তিনি করেছেন তা তার বেশ উপভোগ্য বলে মনে হয়েছে।

অপরপক্ষে আবার যীশু সেনগুপ্ত মনে করেন দক্ষিণী ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিতে কলাকুশলীদের যেভাবে সম্মান প্রদর্শন করা হয় তা বাংলা সিনে ইন্ডাস্ট্রিরও শেখা উচিত। তার অভিজ্ঞতা থেকে তিনি বলেছেন, দক্ষিণী ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিতে “বাহুবলি”কে যেরকম মর্যাদা দেওয়া হয়, সাধারণ বাজেটের ছবিগুলিকেও একই মর্যাদা দেওয়া হয়।