আমরা প্রত্যেকেই ডিমের খোসা ফেলে দেই কিন্তু এটি দারুন উপকারী! দেখে নিন এর উপকারিতা গুলি

85
আমরা প্রত্যেকেই ডিমের খোসা ফেলে দেই কিন্তু এটি দারুন উপকারী! দেখে নিন এর উপকারিতা গুলি

ডিমের খোসা তো আমরা সবাই ফেলেই দেই। কিন্তু আমরা অনেকেই জানিনা ডিমের খোসা খুবই কার্যকরী জিনিস। রূপচর্চা থেকে গৃহস্থলীর নানা কাজে ডিমের খোসা ব্যবহার করা যায়। দেখে নেওয়া যাক ডিমের খোসার ব্যবহারগুলি।

কফি খেতে তেতো লাগে? এক কাজ করুন। ডিমের খোসা গুঁড়ো করে নিন। তারপর এক চিমটে গুঁড়ো কফির সঙ্গে মিশিয়ে ছেঁকে ফেলুন। দেখবেন কফির তেতো ভাব কমে গেছে।

বাগানের গাছে পোকার উপদ্রব বাড়লে এক কাজ করুন। বাগানের চারপাশে, গাছের গোড়ায় ডিমের খোসা গুঁড়ো করে ছড়িয়ে দিন। পোকা ধারে কাছে আসবে না। ডিমের খোসায় থাকে ক্যালসিয়াম এবং মিনারেল। যা মাটির উর্বরতা বৃদ্ধি করে।

একটা ডিমের সাদা অংশের সাথে দুটি ডিমের খোসা ভালো করে গুঁড়ো করে মিশিয়ে নিন। এরপর এটি ১৫ মিনিট মুখে লাগিয়ে রাখুন। তারপর উষ্ণ জল দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। সপ্তাহে দুবার এরকম করুন। ত্বক উজ্জ্বল হবে এবং ব্রণের সমস্যা কমে যাবে।
ডিমের খোসা বাসন পরিষ্কার করার সময় কাজে লাগান। বাসনের চটচটে ও পোড়া দাগ সহজেই উঠে যাবে।

বেসিনের পাইপে নোংরা জমে গেলে ডিমের খোসা গুঁড়ো করে বেসিনের ছাকনির মধ্যে দিয়ে দিন। এরপর বেশি করে জল ঢেলে দিন। ময়লা পরিষ্কার হয়ে যাবে।

একটি পাত্রে অ্যাপল সিডার ভিনিগারের সঙ্গে একটি গোটা ডিমের খোসা গুঁড়ো করে মিশিয়ে নিন। এই মিশ্রন ২,৩ দিন রেখে দিন। এর ফলে ভিনিগারের সঙ্গে ডিমের খোসা একেবারে মিশে যাবে।

কোনো জায়গায় ব্যথা হলে এই মিশ্রণটি সেখানে আলতো করে মালিশ করুন। এতে ব্যথা কমে যাবে।