প্রথমবার প্রকাশিত হল মঙ্গলের জলের মানচিত্র

40
প্রথমবার প্রকাশিত হল মঙ্গলের জলের মানচিত্র

মঙ্গলে জলের উপস্থিতি সম্বন্ধে অনেক আগেই ধারণা করেছিলেন মহাকাশ বিজ্ঞানীরা। সম্প্রতি তার প্রামাণ্য মানচিত্র পেলেন তাঁরা। বিভিন্ন কারণে লাল গ্রহের ওপর সমীক্ষা করার জন্য ভূতত্ত্ববিদরা মার্স এক্সপ্রেসের ওমেগা যন্ত্র ও এমআরও-তে মার্সের জন্য কমপ্যাক্ট রিকনাইসেন্স ইমেজিং স্পেকট্রোমিটার থেকে ডেটা ব্যবহার করেছেন।

বিজ্ঞানীদের প্রাথমিক ধারণা ছিল যে কাদামাটির মতো খনিজ পদার্থ তৈরি হয়েছিল মঙ্গল গ্রহে। তবে নতুন মানচিত্র অনুযায়ী মঙ্গলে শুধুমাত্র কয়েকটি স্থানে জল সীমাবদ্ধ ছিল না। গ্রহের চারপাশে ভূতত্ত্ব গঠনে একটি বিশাল ভূমিকা পালন করেছিল জল।গ্রহজুড়ে ছড়িয়ে থাকা খনিজ বস্তুগুলিকে মানচিত্রগুলিতে বিশদভাবে দেখানো হয়েছে। আর তা অনুযায়ী এই স্থানগুলি শনাক্ত করতে একসঙ্গে কাজ করেছে ইউরোপের মার্স এক্সপ্রেস অবজার্ভেটরি এবং আমেরিকার মার্স রিকনসেন্স অরবিটার।

এই মানচিত্রে নদী বা হ্রদের ছবির পাশাপাশি এও দেখানো হয়েছে যে, মঙ্গলে কোথায় কোথায় অবতরণ করা যেতে পারে। মঙ্গলের প্রথমবার মঙ্গলে জলের মানচিত্র প্রকাশের সঙ্গে সঙ্গে ইউরোপীয় স্পেস এজেন্সি বা এসা এক ধাপ এগিয়ে গেল। তবে জানা যাচ্ছে, মঙ্গলের পৃষ্ঠে জলের কোনো চিহ্ন নেই। রাসায়নিক ও বর্ণালি বিশ্লেষণে প্রতিষ্ঠিত লালগ্রহে এক সময় নদী প্রবাহিত হত বলেও খবর পাওয়া গেছে।