করোনার দোহাই দিয়ে মাঝপথে ভোট বন্ধ করা যাবে না, চরম হুঁশিয়ারি মমতার

9
করোনার দোহাই দিয়ে মাঝপথে ভোট বন্ধ করা যাবে না, চরম হুঁশিয়ারি মমতার

দেশজুড়ে উত্তরোত্তর করোনা পরিস্থিতি উদ্বেগজনক হয়ে উঠছে। দেশের দৈনিক সংক্রমণের হার এক লক্ষের মাত্রা ছাড়িয়ে গিয়েছে। এরই মধ্যে আবার রাজ্যজুড়ে একুশের বিধানসভা নির্বাচন প্রক্রিয়া চলছে। চলতি দফায় রেকর্ড 8 দফা নির্বাচন করানোর সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে নির্বাচন কমিশন। এ প্রসঙ্গে প্রথম থেকেই ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

এবার ভোটের প্রচারে নেমে কমিশনের এই সিদ্ধান্তের প্রতি কটাক্ষ হেনে রীতিমতো হুঁশিয়ারি জারি করলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। মমতার কড়া হুঁশিয়ারি, করোনার দোহাই দিয়ে মাঝপথে ভোট বন্ধ করা যাবে না। তিনি স্পষ্ট উল্লেখ করে দিয়েছেন, করোনার মধ্যেই ভোট পর্ব শুরু হয়েছে। করোনা পরিস্থিতি মাথায় রেখে এই দফায় ভোট তিন থেকে চার দফায় সম্পন্ন করা উচিত ছিল বলে মন্তব্য করেছেন মুখ্যমন্ত্রী।

মুখ্যমন্ত্রী এদিন বলেন, তিন থেকে চার দফায় ভোট শেষ না করে 8 দফা ভোটের আয়োজন করা হয়েছে। এখন যদি মাঝ পথে ভোট থামিয়ে দেওয়ার চক্রান্ত হয় তাহলে তৃণমূল তা মেনে নেবে না। তিনি এও বলেছেন, “খেলা যখন শুরু হয়েছে, তখন তা শেষ করতেই হবে।” রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের অনুমান, বাংলার মুখ্যমন্ত্রী এভাবে কার্যত বিজেপিকেই নিশানা করেছেন।

মুখ্যমন্ত্রী এদিন বলেন, নির্বাচন যখন শুরু হয়েছে তখন তা বিধি মেনে সম্পন্ন করতেই হবে। করোনা টিকা নিয়েও বিজেপিকে আক্রমণ করেন মুখ্যমন্ত্রী। তিনি বলেন রাজ্যের সবাইকে বিনামূল্যে টিকা দিতে চান তিনি। এর জন্য কেন্দ্রকে বারংবার চিঠিও লিখেছেন। কিন্তু কেন্দ্র টিকা দিতে চাইছে না। মুখ্যমন্ত্রীর অভিযোগ, কেন্দ্রীয় সরকার চাইছেন বাংলার মানুষ মারা যান।