বিমান বন্দরে স্বামীকে নিয়ে টানাটানি দুই স্ত্রীর, ভাইরাল ভিডিও

14
বিমান বন্দরে স্বামীকে নিয়ে টানাটানি দুই স্ত্রীর, ভাইরাল ভিডিও

মানুষ সমাজবদ্ধ জীব, মানুষ সেই সমাজের একটি অংশ। প্রত্যেকটা মানুষেরই নিজস্ব জীবন যাপনের ধরন থাকে, কিন্তু সমাজের কিছু নিয়ম আমাদের মেনে চলতে হয়, কিন্তু বর্তমানে মানুষের জীবনযাত্রা ধরন উগ্র হয়ে উঠেছে।

যার ফলে এমন কিছু ঘটনা আমাদের সামনে আসছে যা, স্তম্ভিত করে দেয়। সম্প্রতি সেরকমই একটি ঘটনা ঘটেছে ঢাকাতে। ঢাকা বিমানবন্দরে মইনুল নামে এক ব্যক্তি মালয়েশিয়া থেকে ফেরার পথে বিমান বন্দরে গাড়িতে ওঠার সময় তার প্রথম স্ত্রী তার সন্তানকে নিয়ে এসে হাজির এবং তার সঙ্গে তার গাড়িতে ছিল দ্বিতীয় স্ত্রী, তার সঙ্গে তিনি বাড়ি ফিরছিলেন, এই নিয়ে ধস্তাধস্তি ও কথা কাটাকাটি থেকে হাতাহাতি শুরু হয়ে যায় ।

এয়ারপোর্ট এর মধ্যে এ ধরনের ঘটনা ঘটায়, সবাই চমকে যায় প্রথমটি তে, তারপরেই এয়ারপোর্টের কর্তৃপক্ষ এসে তাদেরকে পুলিশ স্টেশনে নিয়ে যান। দুই স্ত্রী অমিত মইনুল কে অবৈধভাবে প্রথমা স্ত্রী থাকা সত্ত্বেও দ্বিতীয় স্ত্রীর সাথে সম্পর্ক রেখেছিলেন। একে অপরকে তা জানতেন না, তার প্রথমা স্ত্রী অবশ্য দাবি করেন বেশ কয়েক মাস ধরে তার সাথে খোঁজ খবর নেওয়া তো দূরের কথা, ডিভোর্সও দেননি এবং তার সন্তানের কোন খরচা বাবদ কোন কিছু টাকাও মইনুল পাঠাতো না।

এ ধরনের অমানবিকতা কেউ কি করে করতে পারে সেটাই হচ্ছে চিন্তা-ভাবনার বিষয়। স্ত্রীর প্রতি টান না থাকলেও, তার নিজস্ব সন্তানের প্রতি বাবার ভালোবাসা থাকবে না, এটা কেমন কথা? এ কোন সমাজে আমরা বাস করছি? হয়তো এই ধরনের ঘটনা আমাদের আশেপাশে প্রায়ই ঘটে থাকে, কিন্তু সবকিছুই তো সংবাদমাধ্যমের সামনে আসে না বা মিডিয়ার সামনে তা প্রকাশ পায় না।

কিন্তু এই ধরনের ঘটনা আমাদের সমাজে ঘটে চলেছে যা, অত্যন্ত লজ্জার ও নিন্দনীয় স্বামী-স্ত্রীর সম্পর্ক সে যখন তার সন্তানের উপর সন্তানের মুখ চেয়ে অন্তত নিজেদের ঠিক থাকা দরকার, শুধুমাত্র নিজেদের সুখ-স্বাচ্ছন্দ কথা ভেবে নয়, যাতে সন্তানের ভবিষ্যত নষ্ট করে দেওয়ার কোন মানে হয়না, এই ধরনের ঘটনা সোশ্যাল মিডিয়ায় অত্যন্ত আলোড়ন সৃষ্টি করেছে।