অনুপ্রবেশ রুখতে এবার মিজোরাম সীমান্তে রেজিমেন্ট গঠন করার কথা জানালেন সাংসদ ভানলাভেনা

5
অনুপ্রবেশ রুখতে এবার মিজোরাম সীমান্তে রেজিমেন্ট গঠন করার কথা জানালেন সাংসদ ভানলাভেনা

ভারতে অনুপ্রবেশ কারীদের সমস্যা নতুন কিছু নয়। সীমানা পেরিয়ে প্রতিবেশী রাষ্ট্রগুলি থেকে প্রতিনিয়ত অসংখ্য অনুপ্রবেশকারী এ রাষ্ট্রের ঢুকে পড়ছে বলে এর আগেও বারবার অভিযোগ উঠেছে। এবার মিজোরামের একমাত্র সাংসদ ভানলাভেনাও এই একই সমস্যা সম্পর্কে সতর্ক করে কেন্দ্রের কাছে আবেদন করলেন। বাংলাদেশ ও মায়ানমার থেকে অনুপ্রবেশকারীরা যাতে আর মিজোরামের সীমান্ত পেরিয়ে এ দেশে অনুপ্রবেশ করতে না পারে, সে উদ্দেশ্যে কেন্দ্রকে তৎপর হওয়ার আবেদন জানিয়েছেন তিনি।

ভানলাভেনা তার আবেদনে জানিয়েছেন, মায়ানমার এবং বাংলাদেশ থেকে প্রচুর অনুপ্রবেশকারী মিজোরামের সীমানা পেরিয়ে ভারতবর্ষে প্রবেশ করছে। এই অনুপ্রবেশ রুখতে মিজোরামের সীমান্তে মিজোরাম রেজিমেন্ট গঠন করা হোক। অথবা সীমান্ত পাহারা দেওয়ার উদ্দেশ্যে প্যারামিলিটারিতে মিজোরামের আলাদা ফোর্স গঠন করার পরামর্শ দিয়েছেন তিনি।

তার অভিযোগ, প্রতিবেশী রাষ্ট্র থেকে অনুপ্রবেশের ফলে মিজোরামে জনসংখ্যা বেড়ে গেছে। যার প্রত্যক্ষ প্রভাব পড়ছে সে রাজ্যের কর্মসংস্থানের উপর। তাই কাজের খোঁজে মিজোরামের বাসিন্দাদের ভিন রাজ্যে পাড়ি দিতে হচ্ছে। পাশাপাশি, জাতীয় সুরক্ষার স্বার্থেও অনুপ্রবেশ রুখতে সীমান্ত পাহারা দেওয়া অত্যন্ত প্রয়োজনীয় বলেই দাবি করেছেন তিনি।

উল্লেখ্য, মায়ানমার এবং বাংলাদেশের সঙ্গে মিজোরামের যথাক্রমে ৪০৪ এবং ৩১৮ কিলোমিটারের সীমানা রয়েছে। মিজোরাম-বাংলাদেশের সীমান্ত পাহারা দেন বিএসএফ জওয়ানেরা এবং মিজোরাম-মায়ানমারের সীমান্ত পাহারা দেয় অসম রাইফেলস। এর আগে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ আশ্বাস দিয়ে বলেছিলেন সিআরপিএফে মিজো ব্যাটেলিয়ান আনা হবে। সে কথা মনে করে দিয়ে কেন্দ্রীয় প্রতিরক্ষা মন্ত্রীর কাছে মিজো রেজিমেন্ট গঠন করার আবেদন জানালেন ভানলাভেনা।