আমেরিকা রাশিয়ার উপর চাপানো নিষেধাজ্ঞা তুলে নেবে!

11
আমেরিকা রাশিয়ার উপর চাপানো নিষেধাজ্ঞা তুলে নেবে!

ইউক্রেনের মারিওপোলের মতো জমজমাট শহর এখন মৃত্যুপুরী। এহেন পরিস্থিতিতে আচমকা সুর নরম করল আমেরিকা। এক শীর্ষ মার্কিন আমলার কথায়, ইউক্রেনে আগ্রাসন থামালে রাশিয়ার উপর যে আর্থিক নিষেধাজ্ঞা চাপানো হয়েছে তা প্রত্যাহার করে নিতে পারে আমেরিকা। সূত্রের খবর, মস্কোর উপর চাপানো নিষেধাজ্ঞা তুলে নেওয়া হতে পারে বলে মন্তব্য করেছেন আমেরিকার ডেপুটি ট্রেজারি সেক্রেটারি ওয়ালি আদেমো।

তিনি বলেন, আমরা এটা সবসময় নিশ্চিত করতে চাই যে আর্থিক নিষেধাজ্ঞা চাপানোর পর পরিস্থিতিতে বদল ঘটলে তা যেন প্রত্যাহার করা যায়। যাদের উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে তারা যেন বুঝতে পারে যে ব্যবহারে বদল ঘটানোই নিষেধাজ্ঞার মূল উদ্দেশ্য।

তবে, বিশ্লেষকদের মতে, এদিন ওয়ালি আদেমো স্পষ্ট ইঙ্গিত দিয়েছেন, ইউক্রেনে আগ্রাসন থামালে আবারও রাশিয়াত সঙ্গে বাণিজ্য সম্পর্ক স্বাভাবিক করতে আগ্রহী আমেরিকা। এবং এই সুর নরম করার কারণ হচ্ছে, জার্মানির মতো ইউরোপীয় দেশগুলি তেল ও গ্যাসের জন্য রাশিয়ার উপর নির্ভরশীলতা। এবং পর্দার আড়ালে জ্বালানি ইস্যুতে ওয়াশিংটন বনাম ব্রাসেলস তরজা চলছে। তাৎপর্যপূর্ণ ভাবে, ২০ এপ্রিল অর্থাৎ আগামীকাল ওয়াশিংটনে জি-২০ দেশগুলির অর্থমন্ত্রী ও কেন্দ্রীয় ব্যাংকের প্রধানরা বৈঠকে বসতে চলেছেন।

পাশাপাশি, একই সময়ে আলোচনায় বসছেন জি-৭ দেশগুলির প্রতিনিধিরাও। রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধে আন্তর্জাতিক বাজারে অশোধিত তেল ও গ্যাসের যে ব্যাপক হারে দাম বাড়ছে সেই কথা উঠে আসবে আলোচনায়। বিশ্ব বাজারে রুশ তেলের বিকল্প যে এখনও খুঁজে পাওয়া যায়নি আমেরিকার ডেপুটি ট্রেজারি সেক্রেটারির বয়ানে তা স্পষ্ট।