মহাকাশ স্টেশন থেকেই নিজের ভোটাধিকার প্রয়োগ করলেন মার্কিন নভোশ্চারীণী কেট রাবিনস

6
মহাকাশ স্টেশন থেকেই নিজের ভোটাধিকার প্রয়োগ করলেন মার্কিন নভোশ্চারীণী কেট রাবিনস

মার্কিন মুলুকে রীতিমতো প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের দামামা বাজছে। দুই প্রতিদ্বন্দ্বী ডোনাল্ড ট্রাম্প এবং জো বিডেনের মধ্যে ভোটের লড়াই তুঙ্গে। সারাবিশ্ব এখন মার্কিন রাজনীতি সম্পর্কে আগ্রহী। নির্বাচন শেষে কি ফলাফল দাঁড়ায় তা জানতে আগ্রহী সকলে। মার্কিন নাগরিকদের কাছে এই নির্বাচনের গুরুত্ব অপরিসীম। তাই একটি ভোটও বিফলে যেতে দিতে চাইছেন না তারা। তাই তো মহাশূন্যে ভেসে থাকাকালীন অবস্থাতেও চলছে ভোট দান পর্ব।

সম্প্রতি, মার্কিন গবেষণা সংস্থা নাসার তরফ থেকে একটি টুইট বার্তায় জানানো হয়েছে, আন্তর্জাতিক মহাকাশ স্টেশন (ISS) থেকেই নিজের ভোটাধিকার প্রয়োগ করেছেন মার্কিন নভোশ্চারীণী কেট রাবিনস। তার জন্য স্পেস স্টেশনের মধ্যেই ভোটদানের জন্য বুথ প্রস্তুত করা হয়েছিল। শূন্যে ভেসে থাকাকালীন অবস্খাতেই ভোটদান পর্ব সেরেছেন কেট। উল্লেখ্য, নাসার ছয় মাসের একটি প্রকল্পে অংশগ্রহণ করে কেট আন্তর্জাতিক স্পেস স্টেশনে রয়েছেন।

তার সঙ্গে রয়েছেন রাশিয়ার দুই নভোচর। নভেম্বরেই তাদের পৃথিবীপৃষ্ঠে ফিরে আসার কথা। তবে, ততদিনে মার্কিন মুলুকে প্রেসিডেন্ট নির্বাচন পর্ব শেষ হয়ে যাবে। তবে নিজের ভোটাধিকার প্রয়োগ করতে গত সপ্তাহেই স্পেস স্টেশন থেকে ভোট দিয়েছেন কেট। উল্লেখ্য, কেট এর আগেও মহাকাশে ভেসে থাকাকালীন অবস্থায় ভোট দিয়েছেন। ২০১৬ সালের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের সময়ও তিনি এভাবেই ভোট দান করেছেন। তার কাছে এই ব্যবস্থা নতুন কিছু নয়।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, আগে মার্কিন মুলুকে এভাবে মহাকাশ থেকে ভোট দান করার অনুমতি ছিল না। ১৯৯৭ সালে একটি বিল পাসের মাধ্যমে আইন সংশোধনের ফলে মহাকাশচারীরা এই সুবিধা পেয়েছেন। এর জন্য অবশ্য মহাকাশচারীদের আগে থেকেই ফেদেরাল পোস্ট কার্ড অ্যাপ্লিকেশনে লিখিত ভাবে ভোট দানের জন্য আবেদন করতে হয়। সেই আবেদন গৃহীত হওয়ার পর মহাকাশে ভোটদানের দিন স্থির করা হয়। এরপর মার্কিন মুলুকের টেক্সাসের বাসিন্দা হিসেবেই ভোট দান করে থাকেন মহাকাশচারীরা।