করোনা সতর্কতাবিধি পালনে প্রত্যেক রাজ্যে একগুচ্ছ কড়া নির্দেশিকা পাঠালো কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক

35
করোনা সতর্কতাবিধি পালনে প্রত্যেক রাজ্যে একগুচ্ছ কড়া নির্দেশিকা পাঠালো কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক

দেশে যেকোনো মুহূর্তে করোনার তৃতীয় ঢেউ আছড়ে পড়তে পারে। করণা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে তাই কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের তরফ থেকে রাজ্য সরকার গুলিকে কড়া নির্দেশিকা পাঠানো হয়েছে। দেশের প্রত্যেক রাজ্যে যাতে করোনা সতর্কতাবিধি উপযুক্ত ভাবে পালন করা হয় তার জন্য একগুচ্ছ নির্দেশিকা পাঠিয়েছে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক। করোনার তৃতীয় ঢেউ এড়ানো এখন কেন্দ্রের কাছে সবথেকে বড় চ্যালেঞ্জ। তাই এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক।

কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র সচিব অজয় ভাল্লা রাজ্যের মুখ্যসচিবদের চিঠি পাঠিয়েছেন। সেই চিঠিতে পাঁচ দফা নিয়ন্ত্রণবিধি, টেস্ট, ট্র‌্যাক, ট্রিট, টিকাকরণ ও করোনা বিধি পালনের উপরে জোর দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন তিনি। একইসঙ্গে প্রতিটি রাজ্যের চালু থাকা করোনা সতর্কতাবিধি কড়াভাবে পালন করার নির্দেশ পাঠিয়েছেন তিনি। করোনাকে রুখতে ভিড়প্রবণ এলাকাগুলিকে হটস্পট হিসাবে চিহ্নিত করার নির্দেশিকা পাঠানো হয়েছে ওই চিঠিতে।

দোকান, বাজার, মল, রেস্তোরাঁ, রেল স্টেশনকে হটস্পট হিসাবে চিহ্নিত করে সেখানে সর্তকতা বিধি চালু করার নির্দেশ দিয়েছেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রসচিব। বর্তমানে দেশজুড়ে করোনার দ্বিতীয় ঢেউ চলছে। এই পরিস্থিতিতে কোনো গাফিলতি পরবর্তী দিনে ভয়ঙ্কর প্রভাব ফেলতে পারে বলে জানিয়েছে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক। গণপরিবহন, পাহাড়ি এলাকায় ভয়ংকরভাবে নিয়ম লঙ্ঘন করা হচ্ছে বলে খবর পৌঁছেছে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের কাছে। সেই বিষয়ে সতর্ক করা হয়েছে সংশ্লিষ্ট বিভাগকে।

এদিকে আবার দেশের বিভিন্ন রাজ্য ও বিভিন্ন কেন্দ্রশাসিত এলাকায় করোনা সংক্রমণের মাত্রা বাড়তে শুরু করেছে। নতুন করে করোনা সংক্রমনের মাত্রা বাড়লে তা আশঙ্কাজনক বলে মনে করছে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক। কিছু রাজ্যে করোনার সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে আসতেই অর্থনৈতিক কার্যকলাপ, ব্যবসা বাণিজ্য শুরু হয়ে গিয়েছে। এই শিথিলতা কোনভাবেই বরদাস্ত করা যাবে না বলে জানিয়ে দিয়েছে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক।