দুর্গাপূজা নিয়ে ভুয়ো খবর ছড়ানোয় গ্রেপ্তার দুই যুবক

6
দুর্গাপূজা নিয়ে ভুয়ো খবর ছড়ানোয় গ্রেপ্তার দুই যুবক

এবার রাজ্যের পুলিশ আরও কড়া হয়ে মাঠে নামল। গতকাল মমতা ব্যানার্জী রাজ্যের পুলিশের উদ্দেশ্যে জানিয়েছে যারা আসলে এই দুর্গাপূজা নিয়ে স্যোশাল মিডিয়ায় মিথ্যা কথা রটাচ্ছে তাদের কানে ধরে উঠবোস করাতে। এর পরের দিনই রাজ্য পুলিশ হাতে নাতে পাকরাও করল দুই কালপ্রিটকে। বরাহনগর ও ঘোলা থেকে ২ যুবককে গ্রেফতার করা হয়েছে, আর তাদের বিরুদ্ধেই স্যোশাল মিডিয়ায় ভুয়ো খবর ছড়ানোর মামলা রুজু করা হয়েছে। এখন তারা পুলিশের হেফাজতে রয়েছে, কিন্তু তাদের আজই তোলা হয়েছিল আদালতে।

গত কয়েকদিন থেকেই স্যোশাল মিডিয়ায় দেখা যাচ্ছিল একটি ভুয়ো পোস্ট, আর সেখানেই উল্লেখ করা ছিল, এবার নাকি পশ্চিমবঙ্গ সরকার সিদ্ধান্ত নিয়েছে আর হবে না দূর্গাপূজা, কারণ পঞ্চমী থেকে একাদশী পর্যন্ত বিকেল পাচটার মধ্যেই জারি করে দেওয়া হবে কার্ফু। এমনকি মন্ডপে মাত্র ঢুকতে দেওয়া হবে ৫ জনকে। এখানেই শেষ না, কারণ সবাইকে করা হবে থার্মাল স্ক্রিনিং।বিসর্জনের দিন শোভাযাত্রা করা যাবে না, এমনকি অষ্টমীর দিন অঞ্জলিতে ব্যবহার করা যাবে না ফুল। এমন সব পোস্ট দেখার পরেই রাজ্য সরকার তৎপর হয়ে ওঠে অভিযুক্তদের ধরার জন্য, পুলিশকেও এর জন্য কড়া ব্যবস্থা গ্রহণ করতে বলে মুখ্যমন্ত্রী।

এবার সেই কাজই করেছে রাজ্য পুলিশ। রাজু বিশ্বাস নামে একজন যুবককে ও প্রভুজিত আচার্য্যকে গ্রেফতার করে। কিন্তু মমতা ব্যানার্জী গতকাল মঙ্গলবার নাম না করে বলেন, এই কাজ যে কে করছে সবাই জানে। যারা আসলে দূর্গাপূজা জীবনে করে নি তারাই এমন ফেক নিউজ ছড়াচ্ছে। তাই আমি রাজ্য পুলিশকে নির্দেশ দিচ্ছি যারা এমন করেছে তাদের খুজে বের করে যেনো কান ধরে উঠবস করানো হয়।