একটি দেহে দুটি প্রাণ, দেখুন তাদের সফলতার কাহিনী

15
একটি দেহে দুটি প্রাণ, দেখুন তাদের সফলতার কাহিনী

এই ঘটনাটি ঘটেছিল ব্রিটেনে ১৯৯০ সালের ৭ ই মার্চ দিনটিতে। দুই জমজ বোন কোল আলো করে এসেছিল তার মায়ের কোলে। তাদের মা এই কথাটি শুনে যথেষ্ট আনন্দিত হয়েছিলেন। কেননা দশ মাস দশ দিন গর্ভে ধারণ করার পর এবং অনেক কষ্ট সহ্য করার পর সে দুই কন্যা সন্তানের মা হয়েছিলেন। কিন্তু এই খুশির এর মাঝেও কিছুটা দুঃখ ছিল। কারণ তার দুই যমজ সন্তান জন্মেছিলেন তারা একে অপরের সাথে সংযুক্ত হয়ে। ডাক্তার বলে দিয়েছিলেন যদি তাদেরকে আলাদা করা হয়, তাহলে হয়তো একজনের মৃত্যু হতে পারে।

তাই তাদের মা সিদ্ধান্ত নেয় তাদেরকে কখনোই পৃথক করবেননা, ভগবান তাদেরকে যেভাবেই পৃথিবীতে পাঠিয়েছে সেইভাবেই রেখে দেবেন। আর পাঁচটা ছেলে মেয়ের মতোই তারা বড় হবে এবং মানুষের মত মানুষ হবে। তাদের এই দুই জমজ বোনের নাম রেখেছিল আ্যবি ও ব্রিটেনি হেনসেন। আ্যবি ও ব্রিটেনি আর পাঁচটা সাধারণ মেয়ের মতোই জীবনধারণ করেছে তার মায়ের সহযোগিতায়। পড়াশোনা শিখেছে, গাড়ি চালানো শিখেছে এবং পড়াশোনা শেষে নিজের পায়ে দাঁড়িয়েছেও অর্থাৎ তারা এখন স্বাবলম্বী।

আ্যবি ও ব্রিটেনি ছোটবেলা থেকে পড়াশোনায় খুবই ভাল ছিলেন। তাদের এখন 30 বছর বয়স পড়াশোনা শেষ করে একজন ইংরেজি ভাষার শিক্ষক এবং আরেকজন গণিতের শিক্ষক। বিষয় হলো এটাই দুই বোনের শুধুমাত্র মাথা ও ঘাড়ই আলাদা ।বাকি শরীরের সব অঙ্গ-প্রত্যঙ্গ একটি করেই। একটি সাধারণ মেয়ের যেমন দুটি হাত, দুটি পা, একটি লিভার একটি কিনডি, একটি ডিম্বাশয় থাকে।

সেরকমই এই এই দুই বোনের ও দুটি হাত, দুটি পা, একটি কিডনি, একটি লিভার একটি ডিম্বাশয় রয়েছে। এক কথায় বলতে গেলে একটি দেহে দুটি প্রাণ। তবে তাদের মা তাদের এই সফলতা দেখে খুবই খুশি। কারণ তিনি যে সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন তাদের জন্মের সময় যে, তাদেরকে তিনি কখনোই পৃথক করবেননা। তিনি এই সিদ্ধান্ত নিয়ে যে কোনো ভুল করেননি সেটা প্রমান করে দিয়েছেন।