একদিনেই জোড়া অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটল কলকাতায়, আগুন নিয়ন্ত্রণে আনার প্রচেষ্টা চালাচ্ছে দমকলের পাঁচটি ইঞ্জিন

7
একদিনেই জোড়া অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটল কলকাতায়, আগুন নিয়ন্ত্রণে আনার প্রচেষ্টা চালাচ্ছে দমকলের পাঁচটি ইঞ্জিন

এক দিনেই কলকাতার বুকে জোড়া অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে গেল! এদিন দুপুরে মানিক তলার একটি ব্যাটারি কারখানায় ভয়াবহ আগুন লাগে। সেই দুর্ঘটনা এড়াতে না এড়াতেই সন্ধের সময় বাগবাজার ব্রিজের কাছে একটি বস্তি এলাকায় ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের খবর মিলেছে। একের পর এক সিলিন্ডার বিস্ফোরণের ঘটনায় কেঁপে উঠেছে ওই এলাকা। পুরো এলাকাই প্রায় আগুনের কবলে চলে গিয়েছে। আগুনের ভয়াবহতা এমনই যে আশেপাশের বহুতলেও আগুন ছড়িয়ে পড়েছে।

এদিন সন্ধের সময় বস্তির স্থানীয় বাসিন্দারা আগুন লাগার ঘটনা টের পান। এরপর তারা দ্রুত দমকল বাহিনীকে খবর দেন। তবে স্থানীয় বাসিন্দাদের অভিযোগ, খবর পাওয়ার বহুক্ষণ বাদে ঘটনাস্থলে পৌঁছেছে দমকলের ইঞ্জিনগুলি। ততক্ষণে আগুন অনেকদূর প্রসারিত হয়েছে। বর্তমানে দমকলের পাঁচটি ইঞ্জিন আগুন নিয়ন্ত্রণে আনার প্রচেষ্টা চালাচ্ছে বলে খবর পাওয়া গিয়েছে। তবে এই পাঁচটি ইঞ্জিন ওই ভয়াবহ আগুন নেভাতে যথেষ্ট নয় বলেই জানাচ্ছেন দমকল কর্মীরা।

ঘটনাস্থলের আগুন নিয়ন্ত্রণে আনার জন্য আরও কয়েকটি ইঞ্জিন লাগবে বলে মনে করা হয়েছে। দমকল বাহিনীর তরফ থেকে জানানো হয়েছে, ওই বস্তিতে প্লাস্টিক, কাঠ জাতীয় দাহ্য বস্তু প্রচুর পরিমাণে মজুদ থাকার কারণে আগুন দ্রুত ছড়িয়ে পড়েছে এবং তা ভয়াবহ রূপ ধারণ করেছে। আশেপাশের বহুতল আবাসনও আগুনের গ্রাসে চলে গিয়েছে বলে জানানো হয়েছে। এদিকে রাতের অন্ধকারে এলাকা প্রবল ধোঁয়ায় ঢেকে থাকা দরুন উদ্ধারকার্যে অসুবিধা হচ্ছে।

বসিতে কেউ আটকে আছেন কিনা এখনই তা জানানো সম্ভব হয়নি। পাশাপাশি আগুন কিভাবে লাগলো তাও এখনও জানা সম্ভব হয়নি। এদিকে ঘটনার জেরে মধ্য ও উত্তর কলকাতার অনেকখানি রাস্তা জুড়ে যান চলাচল সম্পূর্ণ বন্ধ হয়ে গিয়েছে। আগুন নিয়ন্ত্রণের পূর্ণ প্রয়াস চালাচ্ছে দমকল বাহিনী।