বিনা কারণে বাতিল কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর টুইটার অ্যাকাউন্ট, সংসদীয় কমিটির ক্ষোভের মুখে টুইটার কর্তৃপক্ষ

6
বিনা কারণে বাতিল কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর টুইটার অ্যাকাউন্ট, সংসদীয় কমিটির ক্ষোভের মুখে টুইটার কর্তৃপক্ষ

গত বছরের নভেম্বর মাসের দিকে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের টুইটার একাউন্টটি আচমকাই সাময়িকভাবে ব্লক হয়ে যায়। টুইটারের আধিকারিকদের বক্তব্য, কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর একাউন্ট সাময়িকভাবে ব্লক হয়ে যাওয়ার প্রক্রিয়াটি একটি “অনিচ্ছাকৃত ভুল” ছিল। সেই সময় অমিত শাহের ডিসপ্লে পিকচারের কপিরাইট ইস্যু নিয়ে সমস্যা সৃষ্টি হওয়ায় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর অ্যাকাউন্ট সাময়িকভাবে ব্লক হয়ে যায় বলে সাফাই দিয়েছিল টুইটার কর্তৃপক্ষ।

এবার ভারতের কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সোশ্যাল অ্যাকাউন্ট বিনা কারণে ব্লক করে দেওয়ার পরিপ্রেক্ষিতে টুইটার কর্তৃপক্ষকে রীতিমতো কেন্দ্রের প্রশ্নের মুখে পড়তে হলো। এ বিষয়ে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য বৃহস্পতিবার সংসদীয় কমিটির তরফ থেকে জায়ান্ট, টুইটার এবং ফেসবুকের আধিকারিকদের ডেকে পাঠানো হয়। সংসদীয় কমিটির বিজেপি আধিকারিকরাই মূলত স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর অ্যাকাউন্ট সাময়িকভাবে বাতিল করার পরিপ্রেক্ষিতে টুইটার কর্তৃপক্ষকে আক্রমণ করেন।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর অ্যাকাউন্ট বাতিল প্রসঙ্গ ছাড়াও টুইটার কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে কেন্দ্রীয় সংসদীয় কমিটির বিভিন্ন অভিযোগ ছিল। যার মধ্যে ৩৭০ ধারা প্রত্যাহারের পরেও মানচিত্রে লেহ-কে কেন জম্মু-কাশ্মীরের অংশ হিসেবে দেখানো হচ্ছে, সে প্রসঙ্গে প্রশ্ন তোলে কেন্দ্রীয় সংসদীয় কমিটি। তথ্য ও প্রযুক্তি সংক্রান্ত সংসদীয় স্ট্যান্ডিং কমিটিওএদিন আলাদা করে ফেসবুক এবং টুইটার কর্তৃপক্ষের সঙ্গে কথা বলেছে বলে জানা গিয়েছে।

ভার্চুয়াল জগতে স্বাস্থ্যকর পরিবেশ গড়ে তুলতে চায় টুইটার কর্তৃপক্ষ। নাগরিক নিরাপত্তার স্বার্থে, সোশ্যাল মিডিয়ার অপব্যবহার রুখতে এবং ভার্চুয়াল দুনিয়ায় মহিলাদের নিরাপত্তা সংক্রান্ত বিষয়ে গুরুত্ব প্রদান করতেই সম্প্রতি মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের টুইটার অ্যাকাউন্ট সাময়িকভাবে ব্লক করা হয়েছে। যদিও কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর অ্যাকাউন্ট ব্লক এবং অন্যান্য ইস্যুতে টুইটারের বিরুদ্ধে পক্ষপাতিত্বের অভিযোগ হেনেছে কেন্দ্রীয় সংসদীয় কমিটি।