বাংলাকে দূষিত করে দিচ্ছে তৃণমূল! একুশের নির্বাচনে বাংলা থেকে নিশ্চিহ্ন হয়ে যাবে তারাঃ দিলীপ ঘোষ

16
বাংলাকে দূষিত করে দিচ্ছে তৃণমূল! একুশের নির্বাচনে বাংলা থেকে নিশ্চিহ্ন হয়ে যাবে তারাঃ দিলীপ ঘোষ

আসন্ন একুশের বিধানসভা নির্বাচন উপলক্ষে বঙ্গ বিজেপি এবং তৃণমূলের মধ্যে জোর সংঘাত বেধেছে। উভয় তরফই আগামী নির্বাচনে বাংলায় নিজ দলীয় পতাকা উত্তোলনে বদ্ধপরিকর। বিশেষত বিজেপি এবার যেন বাংলা সম্পর্কে একটু বেশিই আত্মবিশ্বাসী। তাই তো বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষের দৃঢ় প্রত্যয়, আগামী একুশের নির্বাচনে বাংলা থেকে তৃণমূল নিশ্চিহ্ন হয়ে যাবে।

শুক্রবার সকালে প্রাতঃভ্রমণে বেরিয়ে আসন্ন একুশের বিধানসভা নির্বাচনের ফলাফল সম্পর্কে আগাম পূর্বাভাস দিতে গিয়ে বিজেপি রাজ্য সভাপতি তৃণমূলের উদ্দেশ্যে কার্যত কটাক্ষ করে বললেন, আগামী মে মাসে পশ্চিমবঙ্গের মানুষ ঝাড়ু দিয়ে তৃণমূলকে বাংলা থেকে পরিষ্কার করে দেবে। এদিন সিউড়ি হামলা সম্পর্কে বলতে গিয়ে দিলীপবাবু বলেন, তৃণমূল বাংলাকে দূষিত করে দিচ্ছে। আগামী নির্বাচনে পশ্চিমবঙ্গের মানুষ তাদের ঝাড়ু দিয়ে পরিষ্কার করবে।

উল্লেখ্য, যোগদান মেলা কর্মসূচিতে অংশগ্রহণ করার উদ্দেশ্যে গত বৃহস্পতিবার রাতেই বনগাঁ শহরে প্রবেশ করেছেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি। শুক্রবার সকালে প্রায় কয়েকশো দলীয় কর্মী নিয়ে প্রাতঃভ্রমণে বের হন তিনি। বনগাঁ পিডব্লুডি বাংলো থেকে যাত্রা শুরু করে মতিগঞ্জ, বাটামোড় হয়ে ত্রিকোণ পার্কের নীলদর্পন ভবনের সামনে এসে তার প্রাতঃভ্রমণ শেষ হয়। সেখানেই দলীয় কর্মীদের সঙ্গে চা চক্রে অংশগ্রহণ করে তিনি।

চা চক্রে অংশগ্রহণ করা কালীন সাংবাদিকদের একাধিক প্রশ্নের জবাবও দেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি। বিজেপির তরফে ভোটের প্রচারে বহিরাগতের হস্তক্ষেপের প্রসঙ্গ উঠলে তিনি বলেন, বাংলার মানুষ সব বোঝেন। তাদের এসব কথা বলে কোনো লাভ হবে না। উল্লেখ্য, বনগাঁর সাংসদ শান্তনু ঠাকুর এদিন বিজেপির রাজ্য সভাপতির কর্মসূচিতে উপস্থিত ছিলেন না। এ প্রসঙ্গে বিজেপি নেতৃত্বের বক্তব্য, উনি মতুয়াদের নিয়ে কাজ করছেন। সবাইকেই যে প্রাতঃভ্রমণে উপস্থিত থাকতে হবে এমন কোনো কথা নেই।