স্বাস্থ্য বিধি মেনে চালু হল ট্রেন পরিষেবা, এবার থেকে নির্দিষ্ট সময়ের ৯০ মিনিট আগে পৌছাতে হবে স্টেশনে

10
স্বাস্থ্য বিধি মেনে চালু হল ট্রেন পরিষেবা, এবার থেকে নির্দিষ্ট সময়ের ৯০ মিনিট আগে পৌছাতে হবে স্টেশনে

১২ই সেপ্টেম্বর অর্থাৎ আজ থেকে দেশে ৪০ জোড়া ট্রেন চালানোর কথা ঘোষণা করেছিল কেন্দ্র। কেন্দ্রের প্রতিশ্রুতি মত, ভারতীয় রেল বোর্ডে তরফ থেকে ৮০ টি ট্রেন চালু করা হলো। এরমধ্যে ত্রিশটি ট্রেন রাজধানী এক্সপ্রেস ট্রেন রয়েছে এবং বাকি পঞ্চাশটি স্পেশাল মেল এক্সপ্রেস ট্রেন রয়েছে। এরমধ্যে পশ্চিমবঙ্গের জন্য ছটি ট্রেন ধার্য করা হয়েছে। এর ফলে আনলক পর্বে এ পর্যন্ত দেশে মোট ৩১০টি ট্রেন চালু করা হলো।

করোনা মহামারীর কারণে রেলে যাতায়াতের মাধ্যমে যাতে সংক্রমণ না ছড়ায়, সেই উদ্দেশ্যে বিগত ২৫শে মার্চ থেকে ট্রেন পরিষেবা বন্ধ রাখা হয়েছিল। তবে লকডাউনের মাঝেই ভিন রাজ্য থেকে পরিযায়ী শ্রমিকদের ফেরাতে, শ্রমিক স্পেশাল ট্রেন চালায় কেন্দ্র। এরপর আনলক পর্বে ধীরে ধীরে ছন্দে ফিরছে দেশ। আজ থেকে যে আশিটি নতুন ট্রেন চালনা করা হচ্ছে, সেগুলি রেলওয়ে বোর্ডের নির্ধারিত সময়সূচি অনুযায়ী চলবে বলে জানা গেছে।

রেলওয়ে বোর্ডের প্রকাশিত নির্দেশিকা অনুযায়ী, গত ১০ই সেপ্টেম্বর থেকেই নতুন ট্রেন গুলিতে সফর করার জন্য অনলাইনে টিকিট বুকিং সিস্টেম চালু করা হয়। রেল ওয়ে বোর্ডের চেয়ারম্যান ভিকে যাদব জানালেন, যাত্রীদের চাহিদার ওপর ভিত্তি করেই আরো আশিটি ট্রেন চালনা করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হলো। পশ্চিমবঙ্গের জন্য যে ট্রেন গুলি ধার্য করা হয়েছে সেগুলি হল, লালগড়-ডিব্রুগড় এক্সপ্রেস এবং ডিব্রুগড়-লালগড় এক্সপ্রেস, যেগুলি রোজ চালনা করা হবে।

ভারতীয় রেল বোর্ডের তরফ থেকে জানানো হয়েছে, পশ্চিমবঙ্গে বৃহস্পতিবার ও শনিবার চলবে হাওড়া-তিরুচিরাপল্লি এক্সপ্রেস; সোমবার, বৃহস্পতিবার ও শনিবার চলবে হাওড়া-ইন্দোর এক্সপ্রেস। অপরপক্ষে, তিরুচিরাপল্লি-হাওড়া এক্সপ্রেস ট্রেন চলবে শুধুমাত্র মঙ্গলবার ও শুক্রবার। ইন্দোর-হাওড়া এক্সপ্রেস মঙ্গলবার, বৃহস্পতিবার ও শনিবার চলো না করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। তবে প্রত্যেক যাত্রীকে নির্ধারিত সময়ে ঠিক ৯০!মিনিট আগে স্টেশনে পৌঁছাতে হবে এবং থার্মাল স্ক্রীনিং করাতে হবে। পাশাপাশি, যাত্রীদের মোবাইলে আরোগ্য সেতু অ্যাপ থাকা বাধ্যতামূলক।