ভুয়ো পুলিশ সেজে তোলাবাজি শিলিগুড়িতে! গ্রেপ্তার ৪

20
ভুয়ো পুলিশ সেজে তোলাবাজি শিলিগুড়িতে! গ্রেপ্তার ৪

ভুয়ো আইএএস, ভিজিলেন্স অফিসার, ভুয়ো সিবিআইয়ের পর এবার ভুয়ো পুলিশের খোঁজ মিলল শিলিগুড়িতে। শিলিগুড়ি ও সিকিমের সংযোগকারী জাতীয় সড়কে পুলিশ সেজে সাদা পোশাকে জাতীয় সড়কে তল্লাশির নামে তোলাবাজি চালানোর অভিযোগ উঠলো এক দল প্রতারকের বিরুদ্ধে। রাতে জাতীয় সড়ক দিয়ে যাওয়া গাড়িকে টর্চ লাইট ফেলে দাঁড় করিয়ে পুলিশের পরিচয় দিয়ে সেই গাড়ির চালকের কাছ থেকে আদায় করা হতো টাকা। এই প্রতারক দলকে হাতেনাতে ধরে ফেললো পুলিশ।

এক একটা গাড়ি থেকে এক এক উপায়ে টাকা আদায় করা হতো বলে অভিযোগ উঠেছে ওই প্রতারক সংস্থার বিরুদ্ধে। শিলিগুড়ি ও সিকিমের সংযোগকারী ১০ নং জাতীয় সড়কের ৮ মাইলে গাড়ি দাঁড় করিয়ে রেখে চলতো তোলাবাজি। তাদের হাবভাব দেখে সন্দেহ হয় এক গাড়িচালকের। এরপর তিনি ভক্তিনগর থানায় তাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেন। তারপরেই পুলিশ তদন্তে নামে। প্রতারকদের কায়দা এবং কৌশল দেখে অবাক হয়ে গিয়েছে পুলিশ।

পুলিশ তদন্তে নেমে জাতীয় সড়ক থেকেই চারজনকে গ্রেপ্তার করে। ধৃতদের মধ্যে থেকে দুজন সিকিমের বাসিন্দা বলে জানা গিয়েছে। দার্জিলিং এবং শিলিগুড়ি লাগোয়া এলাকার বাসিন্দা বাকি দুজন। ‘POLITE’ লেখা স্টিকার লাগানো গাড়ি রয়েছে তাদের। দূর থেকে দেখলে আচমকা পুলিশের গাড়ি বলেই ভ্রম হয়। ধৃতদের কাছ থেকে একটি টর্চ লাইট, ডাক্তারের সিল-সহ বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ নথি উদ্ধার করেছে পুলিশ। ধৃতদের গায়ে অবশ্য পুলিশের পোশাক ছিল না।

এতদিন পর্যন্ত কতগুলি গাড়ির বিরুদ্ধে এমন ভুয়ো অপারেশন চালিয়েছিল তারা তা জানার জন্য তদন্ত করছে পুলিশ। জরিমানা বাবদ কত টাকা জোগাড় করেছিল, এই চক্রের সঙ্গে আরও কেউ জড়িত আছেন কিনা তার তদন্ত চালানো হচ্ছে। শিলিগুড়ি পুলিশের এক পদস্থ কর্তা অবশ্য জানিয়েছেন তদন্ত করে জানা গিয়েছে একটি আন্তঃ রাজ্য চক্র জড়িত রয়েছে এই ঘটনার সঙ্গে।