গুগল আর্থ এর মাধ্যমে এক ব্যাক্তি সাত বছর পর আবার ফিরে পেলেন তার বাবাকে

5
গুগল আর্থ এর মাধ্যমে এক ব্যাক্তি সাত বছর পর আবার ফিরে পেলেন তার বাবাকে

প্রিয়জনের বিয়োগ সবথেকে বেশি কষ্ট দেয় আমাদের। সহ্য করতে হবে জেনেও আমরা যেন মেনে নিতে পারিনা। এই পৃথিবীতে মায়া মমতায় জড়িয়ে থাকি আমরা। তবে প্রিয়জনকে আমরা খুঁজে পাই বিভিন্ন ছবিতে এবং ভিডিওতে। এ রকমই জাপানের একজন ব্যক্তি তার বাবাকে খুঁজে পেলেন গুগল আর্থ এর মাধ্যমে। সাত বছর পর তিনি আবার ফিরে পেলেন তার বাবাকে।

সশরীরে না হলেও ভার্চুয়াল ভাবে তিনি আবার দেখতে পেলেন তার বাবাকে তার বাড়ির সামনে দাঁড়িয়ে থাকতে। শৈশবের কথা আরো সকলের মত সেই ব্যক্তির মনে পড়তো। কিন্তু লকডাউন এ বাড়িতে আসা তার পক্ষে অসম্ভব ছিল। তার মধ্যেই একদিন তিনি ঠিক করলেন, ভার্চুয়াল ভাবে তিনি ঘুরে আসবেন তার বাড়িতে। তবে শুধুমাত্র বাড়ি নয়, ভার্চুয়াল ভাবে তিনি দেখতে পেলেন তার বাবাকে ও।

বাবাকে দেখতে পেয়ে পুরনো দিনের স্মৃতি মনে পড়ল তার। টুইটার ব্যবহারকারী ওই ব্যক্তি জানিয়েছেন যে, গুগল আর্থের মাধ্যমে তিনি তার বাবার ছবি দেখতে পান। ঠিক যেন তার বাবা আগের মতোই দাঁড়িয়ে রয়েছেন তার বাড়িতে। এই ভাবেই তার বাবা-মায়ের জন্য অপেক্ষা করতেন। বাবাকে আরো একবার দেখতে পেয়ে মন ভারি হয়ে যায় তার।

পোষ্টের মাধ্যমে তিনি জানিয়েছেন যে, বাড়িতে বসে গুগল আর্থে যখন বাড়ি দেখতে চান তখন হঠাৎ করে দেখতে পান তার বাবাকেও। যেনো সশরীরে তার সামনে দাঁড়িয়ে আছেন তার বাবা। গুগল আর্থের কাছে তিনি আবেদন করেছেন যে, এই ছবি যেন পাল্টে না ফেলেন তারা। সামনাসামনি না হলেও এভাবেই জেন তিনি তার বাবাকে সারাজীবন দেখে যেতে পারেন।

তার পোস্ট দেখে অনেকেই ভারাক্রান্ত হয়েছেন। ইতিমধ্যেই প্রায় কয়েক লক্ষ মানুষ দেখে ফেলেছেন এই পোস্ট। শেয়ার এবং কমেন্ট এ ভরে গেছে এই পোস্টটি। অনেকেই তাকে জানিয়েছেন যে, গুগলের নতুন ফটো আপলোড হলেও পুরনো ছবি মুছে যায় না। তাই তিনি নিশ্চিন্ত থাকতে পারবেন। তার বাবাকে বারবার তিনি দেখতে পারবেন অনায়াসে।

তবে এর আগেও একজন যুবতী গুগোল স্ট্রিটের মাধ্যমে খুঁজে পেয়েছিলেন তার দাদু কে। ২০১৬ সালে তার দাদু মারা গিয়েছিলেন। দাদু ঠাকুমার বাড়ি খুঁজতে গিয়ে দেখতে পেয়েছিলেন তার দাদুকে।