আবর্জনার স্তুপে হাজার হাজার আধার কার্ড! চাঞ্চল্য শিলিগুড়ি ইস্টার্ন বাইপাসে

20
আবর্জনার স্তুপে হাজার হাজার আধার কার্ড! চাঞ্চল্য শিলিগুড়ি ইস্টার্ন বাইপাসে

আধার কার্ড ভারতের প্রতিটি নাগরিকের প্রধান পরিচয় পত্র। বর্তমান সময়ে আধার কার্ড ছাড়া কোনো অফিশিয়াল কাজকর্ম সম্ভব নয়। অথচ এমন হাজার হাজার আধার কার্ড আবর্জনার স্তুপের মধ্যে ফেলে গেল কেউ বা কারা। শিলিগুড়ি ইস্টার্ন বাইপাস সংলগ্ন এলাকার এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে রীতিমতো চাঞ্চল্যকর পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়েছে। ওই এলাকার একটি ফাঁকা জমিতে আবর্জনা শুকোতে দেন আবর্জনা সংগ্রহকারীরা। তাদের চোখেই প্রথম এই ঘটনা ধরা পড়ে।

বস্তাভর্তি আবর্জনা এইভাবে রোদে শুকানোর সময় রাজু ঘড়াই নামের এক ব্যবসায়ীর চোখে প্রথম এই দৃশ্য ধরা পড়ে। তিনি দেখেন আবর্জনার মধ্যে পড়ে রয়েছে অগুন্তি আধার কার্ড। শুধু তাই নয়, বেশকিছু ব্যাংকের বই এবং এটিএম কার্ডও উদ্ধার করা হয়েছে আবর্জনার স্তুপ থেকে। কৌতূহলবশত তিনি এই ব্যাপারটি খতিয়ে দেখার জন্য এগিয়ে যান।

আধার কার্ডের গায়ে ফোন নম্বর লেখা দেখে সেই নম্বরে ফোন করেন তিনি। দীপু অধিকারী নামের এক আধার কার্ড ধারক সঙ্গে সঙ্গে ঘটনাস্থলে ছুটে আসেন এবং আবর্জনার স্তূপের মধ্য থেকে তিনি নিজের মেয়ের আধার কার্ড উদ্ধার করেন। ঘটনা দেখে তাজ্জব তারা। সরকারি অফিসের এমন গাফিলতির ঘটনায় তারা বেজায় ক্ষুব্ধ হয়েছেন। তিনি জানাচ্ছেন বহুবার পোস্ট অফিসে গিয়েও তিনি আধার কার্ড সংগ্রহ করতে পারেননি। এখন সেই আধার কার্ড আবর্জনার স্তুপ থেকে পাওয়া গেল।

ঘটনার পর থেকেই এলাকায় চাঞ্চল্য সৃষ্টি হয়েছে। এই আধার কার্ড গুলি কোথা থেকে সংগ্রহ করে আনা হয়েছিল তা এখনো জানা যায়নি। পরে পুলিশ এসে ঘটনাস্থল থেকে আধার কার্ডগুলিকে উদ্ধার করে নিয়ে গিয়েছে। এমন গুরুত্বপূর্ণ নথি কিভাবে আবর্জনার স্তুপের মধ্যে এলো, তা খতিয়ে দেখছে পুলিশ।