রোগ সারাতে নিজের প্রস্রাব নিজেই পান করছেন এই যুবক!

7
রোগ সারাতে নিজের প্রস্রাব নিজেই পান করছেন এই যুবক!

দুনিয়ায় আবিষ্কৃত হয়েছে নানা চিকিৎসা পদ্ধতির। উন্নত হয়েছে পরিকাঠামো। তবে ইতিমধ্যে খুব আজব এক চিকিৎসা পদ্ধতির কথা শোনা যায় এবং একে নিয়ে নেট দুনিয়ায় রীতিমতো শোরগোল পরে যায়। জানা যায় ইংল্যান্ডের এক নিরামিষভোগী ব্যাক্তি তার রোগ সারাতে নিজের প্রস্রাব নিজেই পান করছেন। ৩৪ বছর বয়সী এই যুবক ২০১৬ সালে এই থেরাপি শুরু করে।

প্রতিদিন ২০০ মিলি তরল বর্জ্য তিনি পান করেন বলে জানা গিয়েছে। তার দাবি এর ফলে তার মানসিক উন্নতির পাশাপাশি চেহারার তাজা ভাব ফিরে পেয়েছেন। তিনি গুরতর ডিপ্রেশনে ভুগছিলেন বলে জানা যায়। তিনি জানান নিজের চিকিৎসা নিজেই শুরু করার পর তার ডিপ্রেশন কমে যায়। তার মতে যবে থেকে তিনি পান করা শুরু করেছেন তিনি শান্তি খুজে পেয়েছেন। বিনামূলের এই টনিক তাকে সবসময় খুশি রাখতে সাহায্য করে।

তার মতে প্রস্রাব পান শুধু তার মানসিক স্বাস্থের উন্নতি সাধন করেনি প্রস্রাব নিজের মুখে ঘষার কারনে তার ত্বক আর উজ্জ্বল হয়েছে এবং তাকে বয়সের তুলনায় অনেক কম দেখায়।’আমার ত্বক নরম ও উজ্জ্বল হয়েছে’ এমন টাই জানান তিনি। এর স্বাদ সম্পর্কে জানতে গেলে তিনি বলেন তাজা প্রস্রাব এর কোন স্বাদ নেই তবে বাসী প্রস্রাবের গন্ধ ঝাঁঝাল হয় এবং তিনি বাসী প্রস্রাব খেয়ে আনন্দ পান। প্রস্রাব পানের ফলে তার শারীরিক দিকের উন্নতি ঘটে ঠিকই কিন্তু তার পারিবারিক সম্পর্কের বিনাশ ঘটে। তার এমন অস্বাভাবিক আচরণের ফলে পরিবার এর সাথে তার সম্পর্ক নষ্ট হয়। তার নিত্যদিনের রুটিনের মধ্যে প্রস্রাব পান করা এখন নিয়মিত হয়ে দাঁড়িয়েছে।