এবার কোচবিহারে গ্রেপ্তার ভুয়ো ডাক্তার

15
এবার কোচবিহারে গ্রেপ্তার ভুয়ো ডাক্তার

একজন ছিলেন মুন্না ভাই, ডিগ্রী ছাড়াই ডাক্তার! পর্দার চরিত্র হঠাৎ বাস্তব হয়ে উঠলো। মাধ্যমিক পাস করেই নাকি একজন ডাক্তার হয়েছেন। রোগী দেখছেন! তাকে দেখে কে বলবে তিনি ডাক্তার নন? ঘটনা কোচবিহারের রাজা রাজেন্দ্রনারায়ণ রোড সংলগ্ন নরসিংহ দিঘির পাশের একটি ক্লিনিকের।

তবে ধরা পড়ে গিয়েছেন ওই ভুয়ো ডাক্তার। পুলিশের জালে জড়িয়ে পড়েছেন তিনি। তিনি রীতিমতো ভুয়া সার্টিফিকেট জোগাড় করে নিজেকে ডাক্তার বলে পরিচয় দিয়ে দীর্ঘদিন ধরে অনেক রোগীর চিকিৎসা করে আসছিলেন। আশেপাশের গ্রাম থেকে প্রচুর মানুষ তার কাছে আসতেন চিকিৎসার জন্য। পরীক্ষা-নিরীক্ষার নামে রোগীদের থেকে মোটা টাকা আদায় করতেন বলে অভিযোগ উঠেছে তার বিরুদ্ধে।

এই ঘটনার পেছনের শহরে একটি চক্র কাজ করছিল বলে তদন্তে নেমে জানতে পেরেছে পুলিশ। সেই চক্রের সঙ্গে কারা যুক্ত রয়েছেন তা জানার চেষ্টা চলছে আপাতত। বাসস্ট্যান্ডে ভুয়া ডাক্তারের দালালরা ছড়িয়ে-ছিটিয়ে থাকতো। তারাই রোগী ধরে আনতো ডাক্তারের জন্য। কোচবিহার বাস টার্মিনালে নেমে কেউ চিকিৎসকের খোঁজ করলেই দালালরা তাকে ওই ভুয়ো ডাক্তারের কাছে এনে ফেলত।

রোগী যদি দালালদের প্রতারণার ফাঁদে পা দিতেন তাহলে বিপদ। মোটা অর্থের বিনিময়ে চিকিৎসা করাতেন ভুয়ো ডাক্তারের কাছে। অবশেষে ওই ডাক্তারকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। সঙ্গে শহরের দুটি প্যাথলজিক্যাল ল্যাবরেটরিও বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।