এবার বাংলাতেও হানা দিলো মারাত্মক “ব্ল্যাক ফাঙ্গাস” সতর্কবার্তা বিশেষজ্ঞদের

21
এবার বাংলাতেও হানা দিলো মারাত্মক “ব্ল্যাক ফাঙ্গাস” সতর্কবার্তা বিশেষজ্ঞদের

করোনা নিয়ে জর্জরিত সারা ভারতবর্ষ। এই ভাইরাসের আক্রমণের হাত থেকে মুক্তি কবে মিলবে? তা জানা নেই। দেশের করোনা পরিস্থিতি উত্তরোত্তর খারাপ হচ্ছে। এরই মধ্যে আবার নতুন করে এক সমস্যা দেখা দিয়েছে দেশে। এতদিন ভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়াই করতে গিয়ে হাজির হতে হচ্ছিল ভারতবাসীকে। এবার ছত্রাক তার দোসর হলো। করোনা আক্রান্ত রোগীর শরীরে বাসা বাঁধছে মারাত্মক “ব্ল্যাক ফাঙ্গাস” রোগ।

এই রোগে আক্রান্ত হলে রোগীর চোখের সমস্যা দেখা দিতে পারে এমনকি তিনি অন্ধও হয়ে যেতে পারেন। এতদিন ভিন রাজ্যে “ব্লাক ফাঙ্গাস” রোগের প্রাদুর্ভাবের কথা শোনা যাচ্ছিল। এবার বাংলাতেও এই মারাত্মক রোগের তিনটি কেস ধরা পড়লো। বিশেষ সূত্রে খবর, বাংলার দুই প্রতিবেশী রাজ্য বিহার এবং ঝাড়খন্ড থেকেই প্রধানত এই রোগীরা বাংলায় এসেছিলেন চিকিৎসার প্রয়োজনে।

তবে স্বস্তি একটাই, এই রোগ ছোঁয়াচে নয়। কিন্তু করোনা আক্রান্ত রোগীর শরীরেই বাসা বাঁধছে ব্ল্যাক ফাঙ্গাস। যা আরো বেশি চিন্তার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। উচ্চ ডায়াবেটিক রোগী কিংবা করোনা সংক্রমিতদের শরীরেই ব্ল্যাক ফাঙ্গাস ছড়িয়ে পড়ার প্রবণতা বেশি বলে জানাচ্ছেন বিশেষজ্ঞরা। গুজরাট, দিল্লি, হরিয়ানা, মহারাষ্ট্র-সহ মোট পাঁচ রাজ্যে এই রোগ ছড়িয়ে পড়ার খবর মিলেছিল। এবার সেই তালিকায় অন্তর্ভুক্ত হলো পশ্চিমবঙ্গ।

মাথা ব্যথা, নিঃশ্বাসের সমস্যা, দাঁতে যন্ত্রণা, চোখ ফুলে যাওয়া, চোখ ব্যথা, নাক থেকে রক্ত বের হওয়া, রক্তবমির মতো একাধিক উপসর্গ ব্ল্যাক ফাঙ্গাস রোগের প্রাথমিক লক্ষণ বলে জানাচ্ছেন বিশেষজ্ঞরা। এই ধরনের কোন উপসর্গ দেখা দিলে অবিলম্বে চিকিৎসকের পরামর্শ নেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।