এবার ভারতের বাজারে বন্ধ হতে চলেছে চীনা মোবাইল সংস্থা Huawei

12
এবার ভারতের বাজারে বন্ধ হতে চলেছে চীনা মোবাইল সংস্থা Huawei

গ্রাহকের তথ্য চুরির অভিযোগ থেকে অব্যাহতি পাচ্ছে না চীন। চীনের বিভিন্ন সংস্থা, সফটওয়্যার অ্যাপ্লিকেশনের বিরুদ্ধে ক্রমাগত গ্রাহকের তথ্য চুরির অভিযোগ উঠেছে। ভারত এবং আমেরিকার মতো পৃথিবীর বিভিন্ন দেশ এই বিষয়ে সরব হয়েছে। লাদাখে ভারত-চীন সীমান্তে সংঘর্ষের প্রেক্ষাপটে ভারত সরকার চীনের একাধিক অ্যাপ্লিকেশনের ব্যবহার ভারতে নিষিদ্ধ করেছে।

এবার সেই তালিকার অন্তর্ভুক্ত হলো চীনের বিশিষ্ট মোবাইল প্রস্তুতকারক সংস্থা Huawei। একটি সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত প্রতিবেদন অনুসারে চীনের এই মোবাইল প্রস্তুতকারক সংস্থা বিরুদ্ধেও অভিযোগ রয়েছে ভারতের। তাই ভারতের বাজারে শীঘ্রই বন্ধ হয়ে যেতে পারে এই কোম্পানিটি। চিনা সংস্থা নির্ভর ভারত এখন ক্রমেই “আত্মনির্ভর” হয়ে উঠতে চাইছে।

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর নেতৃত্বে ভারত “আত্মনির্ভর ভারত” এর লক্ষ্য নির্ধারণ করেছে। চিনা প্রযুক্তি এবং সামগ্রীর উপর নির্ভরতা কাটিয়ে উঠতে চাইছে ভারত। এই মর্মে ভারত সরকারের তরফ থেকে একটি নির্দেশিকায় জানানো হয়েছে, আগামী ১৫ই জুনের পর থেকে ভারত সরকারের নির্ধারিত সংস্থা থেকেই যন্ত্রাংশ কিংবা অন্যান্য সামগ্রী কেনা যাবে।

এর জন্য বর্তমানে ভারত সরকারের তরফ থেকে একটি বিশেষ তালিকা প্রস্তুত করার কাজ চলছে। এই তালিকায় প্রধানত যে সংস্থাগুলি থেকে যন্ত্রাংশ কেনা যাবে না সেই সংস্থার নাম থাকবে বলে মনে করা হচ্ছে। এই তালিকার মধ্যে চীনের Huawei কোম্পানিটির নাম থাকতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে। প্রসঙ্গত ইতিমধ্যেই আমেরিকা এবং ব্রিটেনের নিষিদ্ধ হয়েছে চীনের এই মোবাইল সংস্থাটি। এবার সম্ভবত খুব শীঘ্রই ভারতের বাজারও হারাবে Huawei।