যৌন নিগ্রহ করতে আসার অপরাধে এইবার উল্টে মার সাহসী কন্যার

4
যৌন নিগ্রহ করতে আসার অপরাধে এইবার উল্টে মার সাহসী কন্যার।

মহিলাদের ওপর ধর্ষণ, শারীরিক হেনস্থার খবর সবসময় শুনে আসছি,এবং দুর্ভাগ্যজনিত ভাবে দিনের দিনের দিন এটা বেড়েই চলেছে। তবে এইবার এই ধরনের অপরাধের যোগ্য জবাব দিল আহমেদাবাদের থাকা এক থাইল্যান্ডের মেয়ে।

খবর সূত্রে জানা গেছে যে, মহিলাটি কোহিমার বাসিন্দা এবং তিনি কাজের সূত্রে তার স্বামীর সঙ্গে আহমেদাবাদে থাকেন। আহমেদাবাদের স্যাটেলাইট এলাকায় অস্থায়ী বাসিন্দা।

এই মহিলাটি আহমেদাবাদের একটি স্পা-তে কাজ করেন। প্রত্যেক দিনের মতোই তিনি রাতে তার কর্মক্ষেত্র থেকে বাড়ির দিকে আসছিলেন। বহুদিন ধরেই তিনি এই কাজের সঙ্গে জড়িত বলেই প্রাথমিক সূত্রে খবর পাওয়া গেছে।

জানা গেছে যে, তিনি যখন বাড়ির দিকে আসছিলেন তখন একজন ব্যক্তি তার ওপর শারীরিক নির্যাতনের চেষ্টা চালায় এবং নাগাল্যান্ডের মেয়ে বলে চিৎকার করে ডাকে।

ঠিক সেই সময় সেই মহিলাটি ভয় না পেয়ে উল্টে সেই অভিযুক্তকে সাহসের সঙ্গে ধরে ফেলেন।

তারপরে লোক জড়ো হয়ে যাওয়ার পর তাদেরই মধ্যে কিছু জন সেই অভিযুক্তকে আটক করে এবং তাদের মধ্যে একজন পুলিশে খবর দেয়।

জানা গেছে যে অভিযুক্ত ২০ বছরের এক যুবক নাম ভিত্তল রাঠোর, সে আহমেদাবাদের তুলসী মুখী এলাকার এক বাসিন্দা।

পুলিশকে খবর দেওয়ার সাথে সাথেই পুলিশ সেখানে উপস্থিত হন এবং সেই অভিযুক্তকে ধরে ফেলেন। সারে নটা নাগাদ সেই মহিলা সেই রাস্তা দিয়ে বাড়ি ফিরছিলেন এবং যখন এসেই অভিযুক্ত তাকে যৌন হেনস্থা করতে চেষ্টা করে।

মহিলা পুলিশকে জানায় যে, যখন তিনি বাড়ির পথে আসছিলেন তখনই হঠাৎ সেই যুবক তাঁকে পিছন থেকে জড়িয়ে ধরে এবং তারপর তাকে থাইল্যান্ডের মেয়ে বলে জোরে জোরে ডাকতে শুরু করে।

তদন্ত অনুযায়ী অভিযুক্তের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে এবং সেখানে থাকা সিসিটিভি ফুটেজের ওপর ভিত্তি করে অভিযুক্তকে শাস্তি দেওয়া হবে বলে জানা গেছে।