এবার কলকাতার কেষ্টপুরের মাস্টারদা স্মৃতি সংঘ ক্লাবের পুজোয় দেখা যাবে সুশান্ত রুপী কার্তিক

6
এবার কলকাতার কেষ্টপুরের মাস্টারদা স্মৃতি সংঘ ক্লাবের পুজোয় দেখা যাবে সুশান্ত রুপী কার্তিক

কার্তিক ঠাকুরের বেশে এবার কলকাতায় আসতে চলেছেন সুশান্ত সিং রাজপুত। বলিউড অভিনেতা সুশান্ত সিং রাজপুতের অকালপ্রয়াণ মেনে নিতে পারছেন না কেউই। প্রায় তিন মাস হয়ে গেল, তার রহস্য মৃত্যু হয়েছে। সোশ্যাল মিডিয়ায় এখনো ঘোরাফেরা করছে তার ছবি এবং অভিনয়ের কিছু ভিডিও ক্লিপ। এবার প্রিয় অভিনেতাকে শ্রদ্ধা জানাতে এক অভিনব পন্থা গ্রহণ করল কলকাতার কেষ্টপুরের মাস্টারদা স্মৃতি সংঘ ক্লাব।

সামনেই দুর্গা পুজো। করোনা মহামারীর জন্য অন্যান্য বারের মতো এবারে অতটা জাঁকজমক না হলেও, ছোট করেই পুজোর আয়োজন শুরু করেছেন উদ্যোক্তরা। তারই মাঝে মাস্টারদা স্মৃতি সংঘ ক্লাবে মা দুর্গার ছেলে কার্তিকের আদল তৈরি হচ্ছে প্রয়াত বলিউড অভিনেতা সুশান্ত সিং রাজপুতের আদলে। কার্তিকের মুখমণ্ডল হুবহু সুশান্তের মুখের আদলে গড়ে তোলা হচ্ছে। শনিবার থেকেই সেই কাজ শুরু করে দিয়েছেন মৃৎশিল্পীরা।

মাস্টারদা স্মৃতি সংঘ ক্লাবের পুজো এবছর ৫১ বছরে পা দেবে। এবার তাদের পুজোর থিম বা মূল আকর্ষণ হবে সুশান্ত রুপী কার্তিক। ক্লাবের সাংস্কৃতিক সম্পাদক শুভঙ্কর নাথ জানালেন, সুশান্ত সিং রাজপুতের চেহারা একেবারে বাঙালির কার্তিক ঠাকুরের সাথে মিলে যায়। তার সেই উজ্জ্বল চোখ, ঢেউ খেলানো চুল, সুঠাম দেহ দেখে একেবারে কার্তিক ঠাকুরের কথাই মনে পড়ে যায়। তাই কার্তিক ঠাকুরের বাহন ময়ূরের উপর তীর-ধনুক হাতে দারুণ মানাবে সুশান্তকে।

শনিবার থেকেই পটে সুশান্তের চেহারা আঁকতে শুরু করে দিয়েছেন শিল্পী মানস রায়। ক্লাব কর্তৃপক্ষের তরফ থেকে জানানো হয়েছে, পুজোর উদ্বোধনে তারা সুশান্তের পরিবারকে উপস্থিত থাকার আবেদন জানাবেন। উল্লেখ্য, করোনার কারণে পুজো মণ্ডপে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলা দরকার। পাশাপাশি, সমাজের মানুষের আর্থিক অবস্থাও খুব একটা ভালো নয়। তাই অন্যান্য বারের মতো প্রচুর অর্থ খরচ করে, এবার আর জাঁকজমক করে পুজো করতে ভরসা পাচ্ছেন না উদ্যোক্তারা। তাই, এবার শিল্পীদের দক্ষতার উপরেই মণ্ডপসজ্জা নির্ভর করবে।