যে ড্রাগ ও মাদকচক্রের বিরুদ্ধে সরব হয়েছেন কঙ্গনা, এবার তার বিরুদ্ধে অভিযোগ আনলেন রাখি সাওয়ান্ত

10
যে ড্রাগ ও মাদকচক্রের বিরুদ্ধে সরব হয়েছেন কঙ্গনা, এবার তার বিরুদ্ধে অভিযোগ আনলেন রাখি সাওয়ান্ত

যখন কঙ্কনাকে নিয়ে উত্তাল সারাদেশ। তখন বলিউডের আইটেম ডান্সার রাখি সাওয়ান্ত কি করে চুপ করে থাকে। এর আগেও সুশান্তের মৃত্যুর পর দু’বার তিনি জনসাধারণের কাছে তার বক্তব্য রেখেছিলেন। তবে প্রত্যেকটি ভিডিও যে হাস্যকর তা বলাই বাহুল্য। প্রথমত তিনি সুশান্তকে স্বপ্নে দেখেছিলেন, সুশান্ত তাকে জানান যে সুশান্ত তার গর্ভে সন্তান হয়ে আসতে চলেছেন। এই ভিডিওটি নিয়ে নেটিজেনদের ক্ষোভের মুখে পড়তে হয়েছিল রাখি কে।

ফের আরো একবার ভারত এবং চীন সংঘাত এরপর তিনি একটি ভিডিও তৈরি করেছিলেন, যাতে তিনি বলেছিলেন যে, তিনি ভারতের প্রতিনিধি হয়ে চিনে যাবেন এবং সেখানে গিয়ে সবাইকে ধ্বংস করে আসবেন। এরপর অন্য একটি ভিডিওটিতে তিনি বলেন যে, তিনি চীনে পৌঁছে গেছেন এবং চীনের প্রধানমন্ত্রী তাকে বিয়ে করতে চাইছেন। এই সমস্ত হাস্যকর ভিডিও পোস্ট করে নিজেকে সর্বদা খবরে শিরোনামে রাখার চেষ্টা করে যান তিনি।

এবার কঙ্কনাকে নিয়ে একটি ভিডিও তৈরি করলেন রাখি সাওয়ান্ত। রাখি কঙ্কনাকে বিদ্রুপ করে বলেন যে, কঙ্কণার মুম্বাইতে আসার কোন প্রয়োজন ছিল না। কঙ্কনা এতদিন মানালিতে ছিলেন, সেখানে তিনি থাকতে পারতেন। তবে মানালিতে বাড়িটাও তার বরের ইন্ডাস্ট্রি থেকে উপার্জিত টাকা দিয়ে বানানো। বলিউডে আসার আগে তিনি আর্থিক দিক থেকে একেবারেই সচ্ছল ছিলেন না, কঙ্কনাকে কথা মনে করিয়ে দেন রাখি।

বলিউডের প্রত্যেককে সাপোর্ট করে রাখি কঙ্কনাকে বলেন যে, বলিউডের অভিনেতাদের উদ্দেশ্য করে কঙ্গনা যে অভিযোগ করেছেন, এরপর আর বলিউড ইন্ডাস্ট্রিতে তিনি কাজ পাবেন না।বলিউড ইন্ডাস্ট্রি সমস্ত পরিচালক এবং প্রযোজকদের উচিত কঙ্কনাকে ব্যান করে দেওয়া। কঙ্কনাকে কাজ না দিয়ে বলিউড থেকে বের করে দেওয়াটাই উচিত সকলের। যে ড্রাগ এবং মাদকচক্রের বিরুদ্ধে সরব হয়েছেন কঙ্গনা, এতদিন কঙ্গনা নিজেও ড্রাগনিতে এমনটাই অভিযোগ করেছেন রাখি সাওয়ান্ত। নারকটিকস কন্ত্রল বিউরো কে তিনি অনুরোধ করেছেন যে, কঙ্কণা কেও যেন একবার টেষ্ট করে দেখা হয়।

কঙ্কণার অনুরাগীদের উদ্দেশ্য করে রাখি বলেন যে, যে মানুষেরা কঙ্কনাকে সাপোর্ট করে চলেছেন, তারা যারা এখন থেকে কঙ্কণার অফিসে কাজ চাইতে যান। কঙ্কণা সাপোর্টারদের আর কেউ কাজ দেবে না বলিউড ইন্ডাস্ট্রিতে। তারা জানে সকলে কঙ্কণার অফিসে গিয়ে কাজ চান।

মুম্বাইকে পাক অধিকৃত কাশ্মীর বলার জন্য কঙ্কণার বিরুদ্ধে সমস্ত ক্ষোভ উগরে দেন রাখি। রাখি বলেন যে, যে মহারাষ্ট্র সকলের গর্ব। সেই মহারাষ্ট্রের পাকিস্তান বলার অধিকার নেই কঙ্কণার। তবে রাখি সাওয়ান্তের এই ভিডিও কতখানি কার্যকর হবে তা একমাত্র ভগবান জানে। কখনোই রাখি কে কেউ গুরুত্ব দিয়ে দেখেন না, এই ভিডিও গুলি তৈরি করে রাখি সাওয়ান্ত বলিউড ইন্ডাস্ট্রিতে নিজের জায়গা করে নিতে চাইছেন এমনটাই মনে করছেন অনেকে।