এবার বাংলা ভাষা নিয়ে ভুয়ো খবর ছড়ানোর দায়ে গ্রেপ্তার অভিযুক্ত

5
এবার বাংলা ভাষা নিয়ে ভুয়ো খবর ছড়ানোর দায়ে গ্রেপ্তার অভিযুক্ত

সামনেই ভোট তার আগে ফের রাজ্য জুড়ে ভুয়ো খবরের ছড়াছড়ি। আর সেই কারণেই মমতা ব্যানার্জী অনেকটাই অস্বস্তির মধ্যে বলেই মনে করছে অনেকে। এবার সেই কারণেই তড়িঘড়ি করে সাইবার সেলের সাহায্য নিয়ে প্রচারকদের ধরার নির্দেশ দিল রাজ্য সরকার। কিছুদিন আগেই দুর্গাপূজা হবে না, এই খবর রটেছিল যা নিয়ে অনেকটাই জল ঘোলা হয়েছিল। সেটার রেশ কাটতে না কাটতেই ফের আরেক ভুয়ো খবরের খোজ পাওয়া গেলো। আর সেই কারণেই ঘাস ফুল শিবির এখন মহা ফাপোরের মধ্যে পড়েছে বলে মনে করছে বিশেষজ্ঞ।

কিন্তু এই সবের পেছনে বলা হচ্ছে বিরোধী শিবিরের হাত আছে, কারণ এখন কালীঘাটের দিকে কান পাতলেই শোনা যাচ্ছে বিরোধী দলের আই টি সেল এমন ধরনের ভুয়ো কাজ করে যাচ্ছে। কিছুদিন আগেই যে দূর্গাপূজা নিয়ে ভুয়ো খবর প্রচার হয়েছিল সেখানে বলা হয়েছে, এবার নাকি হবে না দূর্গাপূজা। কোনোভাবেই ঠাকুর দেখা যাবে না, সাথে বিকাল ৫ টা থেকেই নাকি রাজ্য সরকার কার্ফু জারি করবে এই সব। এর পরে তাদের হাত নাতে পাকরাও করে রাজ্য পুলিশ। কিন্তু এবার সেই রেশ কাটতে না কাটতেই আরেক ভুয়ো খবরের খবর পাওয়া গেলো।

তবে এবারের যে ভুয়ো খবর সামনে এসেছে সেটা আগেরটার থেকেও আরও বেশী ভয়ঙ্কর। কারণ এবারের খবর বাংলা ভাষাকে নিয়ে। আসানসোলের খবর। এই আসানসোল কিন্তু ঝাড়খন্ডের একেবারে লাগোয়া, তাই সেখানে হিন্দি ভাষাভাষী লোকও আছে অনেক। তাই বলে কি পুরনিগমের সাইন বোর্ডে জায়গা পাবে না বাংলা ভাষা? এই নিয়েই স্যোশাল মিডিয়ায় তুমুল বিতর্ক।

যে ছবি দেওয়া হয়েছে সেখানে দেখা যাচ্ছে ঊর্দু, ইংরাজী ও সবার শেষে হিন্দি আছে, কিন্তু বাংলা নেই। এবার এই নতুন বিষয় নিয়েই শুরু হয়েছে ঝামেলা। আর এটা যখন আরও মানুষের সামনে যায়, তখন আসানসোলের স্থানীয় মানুষেরাই নিজের থেকে সাইনবোর্ডের পোস্ট করে। যেখানে দেখা যায় বড় বড় হরফে লেখা রয়েছে বাংলা ভাষায়। এর পরেই ভুয়ো খবর ছড়ানো নিয়ে তদন্ত নামে পুলিশ ও গ্রেফতার করা হয় অভিযুক্তকে।