এবার দূর্গাপূজার আগে রাজ্যের কৃষকদের আগাম ২০০০ টাকা করে পেনশন দিবে রাজ্য সরকার

13
এবার দূর্গাপূজার আগে রাজ্যের কৃষকদের আগাম ২০০০ টাকা করে পেনশন দিবে রাজ্য সরকার

বেশী দেরি নেই আর পুজোর। হাতে আর এক মাসের একটু বেশী। এই সময়েই কেন্দ্র একেবারে মোক্ষম চাল চেলেছে, আর সেটা হল রাজ্যের যে বকেয়া টাকা ছিল ৪১৭ কোটি, সেটা সম্পূর্ণ মিটিয়ে দিয়েছে। আর সেই কারণেই রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জী এক বড় ধরনের পদক্ষেপ গ্রহণ করতে চলেছে। তিনি এবার জানিয়ে দিয়েছে দূর্গাপূজার আগে সমস্ত রাজ্যের কৃষকদের দেওয়া হবে আগাম ২ মাসের পেনসন, এই সুযোগ থেকে বাদ পরবে না মৎসজীবীরাও।

মমতা ব্যানার্জী জানিয়েছেন, এবার রাজ্যের কৃষক ও মৎস্যজীবীরা সবাই আগাম্ ভাতা পেতে চলেছে পূজোর আগে। পূজো উপলক্ষ্যেই যে এই ভাতা আগেভাগে দেওয়া হচ্ছে সেটা মনে করছে অনেকে। অর্থাৎ, এবার রাজ্যের কৃষকেরা অক্টোবর মাসে ২০০০ টাকা ভাতা পেতে চলেছে, যা কিনা আরও পরে দেওয়ার কথা ছিল। এর জন্য মোট খরচের অঙ্কও জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী, ২২ কোটি টাকা।

এবার বিশেষজ্ঞদের মতে দূর্গাপূজা তো একটা সামান্য কারণ, সামনেই একুশের ভোট, আর সেটার জন্য দুর্গাপূজাকেই মঞ্চ হিসেবে বেছে নেওয়ার চেষ্টা করছে তৃণমুল। সেই কারণেই এবার ভোট ব্যাঙ্কে ভোট বাড়ানোর এটাই সুবর্ণ সুযোগ। তবে বিজেপিও কিন্তু পিছিয়ে নেই। তারাও একেবারে উঠে পরে লেগেছে। সাধারণ মানুষের জন্য কেন্দ্রীয় প্রকল্প নিয়ে আসছে। কিন্তু মমতা ব্যনার্জী তাদের থেকেও এক স্টেপ আগে। তাই গ্রামের কৃষকদের ভোট নিজেদের শিবিরে নিয়ে আসার চেষ্টা চালাচ্ছে।

গত কয়েকমাস আগে, আম্ফানের কারণে কৃষকদের সাথে ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে মৎস্যজীবীরা, তাই এবার কৃষকদের সাথে মৎস্যজীবীদের আর্থিক সাহায্যের কথা জানালেন তিনি। যা দেখে মনে করা হচ্ছে পূজোর আগে, এই করোনা পরিস্থিতির মধ্যে এই আর্থিক সাহায্য অনেকটাই কাজে লাগবে। তবে কেন্দ্র তাদের ঝাপি খুলেছে। কারণ রাজ্যের বকেয়া তারা মিটিয়ে দিয়েছে ৪১৭ কোটি টাকা।