এবার বাংলাসহ আটটি আঞ্চলিক ভাষায় ইঞ্জিনিয়ারিং শিক্ষাকে অনুমোদন দিচ্ছে অল ইন্ডিয়া টেকনিক্যাল এডুকেশন

11
এবার বাংলাসহ আটটি আঞ্চলিক ভাষায় ইঞ্জিনিয়ারিং শিক্ষাকে অনুমোদন দিচ্ছে অল ইন্ডিয়া টেকনিক্যাল এডুকেশন

শিক্ষাকে আর কোনো ক্ষেত্রেই বেঁধে রাখার পরিকল্পনা নেই শিক্ষা দপ্তরের। শিক্ষা প্রক্রিয়ার উদারীকরণ ব্যবস্থায় বিশ্বাসী বর্তমান সরকার। বর্তমানের শিক্ষা ব্যবস্থার মধ্যে ইংরেজি শিক্ষা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ হলেও কার্যত মাতৃভাষায় উচ্চশিক্ষাকেও অগ্রাধিকার দেওয়া হচ্ছে। এই ধারণা থেকেই মূলত বাংলাসহ আটটি আঞ্চলিক ভাষায় ইঞ্জিনিয়ারিং শিক্ষাকে অনুমোদন দিচ্ছে অল ইন্ডিয়া টেকনিক্যাল এডুকেশন।

অর্থাৎ মেধাবী পড়ুয়াদের মধ্যে যারা ইংরেজীতে দুর্বল, তারাও এবার থেকে বাংলা ভাষায় ইঞ্জিনিয়ারিং শিক্ষা অর্জন করতে পারবেন। এমন বহু শিক্ষার্থীই রয়েছেন, যাদের ইংরেজির প্রতি ভীতি রয়েছে। তাদের জন্যই কার্যত এমন সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে শিক্ষা দপ্তর। শুধু বাংলা নয়, মাতৃভাষায় উচ্চশিক্ষার ক্ষেত্রে অগ্রাধিকার দেওয়া হচ্ছে হিন্দি, মারাঠি, গুজরাটি, তামিল, তেলুগু, কন্নড় এবং মালায়ালম ভাষাকেও।

কেমন হবে মাতৃভাষায় ইঞ্জিনিয়ারিং শিক্ষা ব্যবস্থা? বিশেষজ্ঞরা জানাচ্ছেন, ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের মূল টার্মগুলি ইংরেজিতে উল্লেখ করা থাকবে। কেবল ভাষাগত কিছু পরিবর্তন আসতে পারে। জার্মানি, ফ্রান্স, রাশিয়া, জাপান এবং চিন সহ একাধিক দেশে ইতিমধ্যেই এই পদ্ধতিতে উচ্চ শিক্ষার ব্যবস্থা চালু হয়ে গিয়েছে। এই দেশগুলিতেও এই পদ্ধতি মেনেই উচ্চ শিক্ষা অর্জন করেন বহু শিক্ষার্থী। ভারতেও এবার থেকে সেই ব্যবস্থা চালু হচ্ছে।

কেন্দ্রীয় সরকারের নয়া শিক্ষা নীতিতে আঞ্চলিক ভাষায় উচ্চশিক্ষার প্রতি গুরুত্ব অর্পন করেছে। আসলে এখনো দেশের বিভিন্ন অঞ্চলের পরিবারের মধ্যে ছোট থেকেই ইংরেজি প্রতি ভীতি থেকে গিয়েছে। সেই সকল পড়ুয়াদের উচ্চশিক্ষায় উৎসাহ প্রদানের উদ্দেশ্যেই কার্যত এমন ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। আঞ্চলিক ভাষায় কোর্স তৈরির পরিকাঠামো ইতিমধ্যেই শুরু করে দিয়েছে এআইসিটিই।