হাওড়ার মল্লিক ফটক এলাকা থেকে এবার ধরা পড়লো এক ভুয়ো ডাক্তার

8
হাওড়ার মল্লিক ফটক এলাকা থেকে এবার ধরা পড়লো এক ভুয়ো ডাক্তার

ভুয়ো আইএএস, আইপিএস, ভিজিলেন্স অফিসার, পুলিশের পর এবার ভুয়ো ডাক্তার ধরা পড়লো হাওড়ার মল্লিক ফটক এলাকা থেকে। সাঁতরাগাছি থানার পুলিশ ওই অভিযুক্তকে গ্রেফতার করেছে। অভিযুক্তের বিরুদ্ধে অভিযোগ, এতদিন এক মৃত চিকিৎসকের রেজিস্ট্রেশন নম্বর ব্যবহার করে ডাক্তারি চালাচ্ছিল ওই ধৃত। এলাকার মানুষদের এ্যালোপ্যাথিক চিকিৎসা চালাচ্ছিল অভিযুক্ত। তবে পুলিশের জালে শেষমেষ ধরা পড়ে গিয়েছে সে।

পুলিশ সূত্রে খবর, অভিযুক্ত ওই ভুয়ো চিকিৎসকের নাম সঞ্জয় কুমার। গত সাত বছর ধরে মৃত চিকিৎসকের রেজিস্ট্রেশন নম্বর ব্যবহার করে এলাকার মানুষদের চিকিৎসা চালিয়ে আসছিল সে। ওই এলাকারই কিছু মানুষের অভিযোগের ভিত্তিতে পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করেছে। অভিযোগ পেয়ে তদন্তে নেমে মঙ্গলবার রাতেই গ্রেপ্তার করা হয়েছে ওই চিকিৎসককে।

পুলিশের তরফ থেকে আরও জানানো হয়েছে যে ধৃত ওই ব্যক্তি তার রেজিস্ট্রেশন সংক্রান্ত কিংবা ডাক্তারি ডিগ্রী সংক্রান্ত কোনো নথি পত্র দেখাতে পারেননি। তাই ধৃতের বিরুদ্ধে জামিন অযোগ্য ধারায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। ধৃতকে হেফাজতে নিতে বুধবার তাকে হাওড়া আদালতে পেশ করেছে পুলিশ। ঘটনাকে ঘিরে চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে ওই এলাকায়।

বিগত কয়েকদিন ধরেই সারা রাজ্য জুড়ে একের পর এক ভুয়ো সরকারি আধিকারিক ধরা পড়ছেন। ভুয়ো আইপিএস অফিসার দেবাঞ্জন দেব ধরা পড়ার পর থেকেই একের পর এক ভুয়ো আইএএস, আইপিএস অফিসার ধরা পড়ছেন রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে। এবার এই তালিকায় নতুন সংযোজন ডাক্তার। সকলের অগোচরে এতদিন ধরে এলাকার মানুষদের চিকিৎসা চালিয়ে আসছিলেন ওই ব্যক্তি। তবে শেষ রক্ষা হলো না। পুলিশের জালেই শেষমেষ জড়িয়ে পড়তে হলো।