এবার করোনার জীবনদায়ী ইনজেকশন চুরি হওয়ার অভিযোগ উঠলো হাসপাতালে কর্মরত এক চিকিৎসকের বিরুদ্ধে

4
এবার করোনার জীবনদায়ী ইনজেকশন চুরি হওয়ার অভিযোগ উঠলো হাসপাতালে কর্মরত এক চিকিৎসকের বিরুদ্ধে

হাসপাতাল থেকে কোভিড ভ্যাকসিন চুরি হচ্ছে, এই অভিযোগ অনেক আগেই উঠেছিল। তবে এবার করোনার চিকিৎসার জন্য জীবনদায়ী ইনজেকশনও চুরি হওয়ার অভিযোগ উঠল কলকাতা মেডিক্যাল কলেজ এবং হাসপাতালে। অভিযোগ উঠেছে ওই হাসপাতালে কর্মরত এক চিকিৎসকের বিরুদ্ধে। চিকিৎসক নাকি প্রায় দশ লক্ষ টাকা দামের করোনা ভ্যাকসিন হাসপাতাল থেকে পাচার করেছেন অন্যত্র।

মেডিকেল কলেজ কর্তৃপক্ষের তরফ থেকে জানানো হয়েছে, হাসপাতালে কর্মরত ওই চিকিৎসক ১০ লক্ষ টাকা মূল্যের ২৬টি টোসিলিজুমাব ইঞ্জেকশন হাতিয়ে নিয়েছেন! সেগুলিকে বাইরে পাচারও করে দিয়েছেন তিনি। হাসপাতালের কর্তব্যরত এক নার্সের কাছ থেকে করোনা চিকিৎসার জন্য প্রয়োজনীয় বহুমূল্য জীবনদায়ী ইনজেকশন হাসপাতালের বাইরে সরিয়েছেন ওই চিকিৎসক!

চিকিৎসকের বিরুদ্ধে প্রমাণ হিসেবে এটি অডিও ক্লিপ উঠে এসেছে মেডিক্যাল কলেজ কর্তৃপক্ষের হাতে। যেখানে তিনি এই ইঞ্জেকশন সম্পর্কে কথা বলছেন। শোনা যাচ্ছে, ওই চিকিৎসকের সঙ্গে নাকি শাসকদলের অত্যন্ত প্রভাবশালী একজন ব্যক্তিত্বের পরিচয় আছে। সেই সুযোগকে কাজে লাগিয়েই নাকি মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল থেকে ইনজেকশন সরিয়েছেন ওই চিকিৎসক।

চিকিৎসকের বিরুদ্ধে অভিযোগ, তিনি নাকি ভুয়ো প্রেসক্রিপশন লিখে হাসপাতালের কর্তব্যরত নার্সকে দিয়ে বারংবার ওই জীবনদায়ী ইঞ্জেকশন তুলিয়েছেন। করোনাকালে মুমূর্ষু রোগীদের চিকিৎসার জন্য ব্যবহৃত হয় এই টোসিলিজুমাব ইঞ্জেকশন। এটি মূলত বাতের ব্যাথার উপশমের জন্য ব্যবহৃত হতো। করোনা চিকিৎসার ক্ষেত্রেও গুরুত্বপূর্ণ উপকারিতা পাওয়া গিয়েছে।