প্রায় পাঁচ একর জায়গা জুড়ে সাম্রাজ্যে বিস্তার করে আছে এই বট গাছ

7
প্রায় পাঁচ একর জায়গা জুড়ে সাম্রাজ্যে বিস্তার করে আছে এই বট গাছ

ইন্ডিয়ান বোটানিক্যাল গার্ডেনের শাল শিমুল, সেগুন, বট, মেহগনি লবঙ্গের মত আরো অনেক রকমের গাছ রয়েছে। এখানে প্রায় ২৫০ বছরের বেশি পুরনো মহা বট বৃক্ষ রয়েছে যা পরিবেশ প্রেমীদের আকর্ষণ করে। খেজুর গাছের মাথায় বট গাছের বীজ পড়ে সেখানে এই বট গাছের জন্ম হয়েছে বলে প্রচলিত মত রয়েছে। এখন সেই বটগাছ প্রায় পাঁচ একর জায়গা জুড়ে সাম্রাজ্যে বিস্তার করেছে।

রানী ভিক্টোরিয়ার শাসনকালে এই উদ্যানের নাম রাখা হয়েছিল রয়েল ইন্ডিয়ান বোটানিক্যাল গার্ডেন। পরে ১৯৬৩ সালে এই উদ্যানের নাম বদলে রাখা হয় ইন্ডিয়ান বোটানিক্যাল গার্ডেন। ২০০৯ সালে আবার গার্ডেনের নাম বদলে যায় এবং বৈজ্ঞানিক জগদীশচন্দ্র বসুর নাম অনুসারে নাম রাখা হয় আচার্য জগদীশচন্দ্র বসু বোটানিক্যাল গার্ডেন।

এখন এই উদ্যান ভারত সরকারের বোটানিক্যাল সার্ভে অফ ইন্ডিয়ার অধীনে রয়েছে। 2017 সালে এই বাগানের সূচনা হয়েছিল ৩১০ একর জমি থেকে। পরে ৪০ একর জমি দিয়ে দেওয়া হয় বিশপস কলেজকে। এখন অবশ্য সেই কলেজ আর নেই সেখানে গড়ে উঠেছে বেঙ্গল ইঞ্জিনিয়ারিং অ্যান্ড সায়েন্স ইউনিভার্সিটি।

এখানে রয়েছে একটি বটগাছ যার বয়স ২৫০ বছর প্রায়। গাছটি পরিধি বিস্তার করতে করতে 486 মিটার এবং ৩.৫ একর জায়গা দখল করেছে। গাছটি উচ্চতায় প্রায় 24.5 মিটার লম্বা। একেবারে মুম্বাইয়ের গেটওয়ে অফ ইন্ডিয়ার মতো লম্বা এই গাছটি।