ভয়ে মূর্তি ফিরিয়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিল চোরেরা!

8
ভয়ে মূর্তি ফিরিয়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিল চোরেরা!

গত ৯ মে মধ্যপ্রদেশের চিত্রকুটের বালাজি মন্দির থেকে ১৬টি মূর্তি চুরি করেছিল কয়েকজন চোর। যার মূল্য কয়েক কোটি টাকা। কিন্তু চুরির পর থেকেই রাতের ঘুম উড়ে যায় চোরেদের। সদর কোতয়ালি করবির এসএইচও রাজীব কুমার সিং জানান, বালাজি মন্দিরের পুরোহিত মোহন্ত রামবালক মূর্তি চুরি যাওয়ার পরই থানায় এসে অজ্ঞাতপরিচয় চোরদের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেন।

তবে পুলিশ পুরোদমে তল্লাশি শুরুর আগেই ঘটনা নয়া মোড় নেয়। রবিবার ওই পুরোহিত বাড়ি থেকে বেরিয়েই দেখতে পান, চুরি যাওয়া ১৬টি মূর্তির মধ্যে ১৪টিই সাজিয়ে রাখা। সেই সঙ্গে রয়েছে একটি চিঠিও। সেখানেই চোরেরা জানিয়েছে, মূর্তিগুলি চুরি করার পর থেকেই ভয়ংকর সমস্ত স্বপ্ন দেখছিল তারা।

রাজীব কুমার সিং জানান, মানিকপুর জওহরনগরে পুরোহিত মোহন্তর বাড়ির সামনে একটি রহস্যময় বস্তা পড়ে থাকতে দেখা যায়। তাতেই সন্দেহ নয় মোহন্তর। কাছে গিয়ে দেখতেই ১৪টি মূর্তি খুঁজে পান তিনি। সেগুলিকে নিয়ে সোজা থানায় চলে যান।

মোহন্ত জানিয়েছেন, এক-একটি মূর্তি অন্তত ৩০০ বছরের পুরনো। এগুলির মধ্যে ন’টি অষ্টধাতুর। তিনটি তামা এবং চারটি পিতলের তৈরি। ছ’টি রাধা-কৃষ্ণ মূর্তি, ছ’টি বিষ্ণু এবং বাকি অন্যান্য দেবদেবীর মূর্তি চুরি গিয়েছিল। যাতে পরানো ছিল রুপোর গয়নাও। ঘটনায় এখনও পর্যন্ত চারজনকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করছে। কিন্তু কাউকে এখনও গ্রেপ্তার করা হয়নি।