সাধু মৃত্যু ঘটনায় সিবিআইয়ের প্রয়োজন নেই, ঘটনার যথাযথ তদন্ত করছে পুলিশঃ মহারাষ্ট্র সরকার

4
সাধু মৃত্যু ঘটনায় সিবিআইয়ের প্রয়োজন নেই, ঘটনার যথাযথ তদন্ত করছে পুলিশঃ মহারাষ্ট্র সরকার

মহারাষ্ট্রের পালঘরে উত্তেজিত জনতার দ্বারা গণপিটুনিতে নিহত দুই সাধু এবং তাদের গাড়ির চালকের মৃত্যু মামলার তদন্তভার সিবিআইয়ের হাতে তুলে দেওয়ার অনুমতি দিল না মহারাষ্ট্র জোট সরকার। নিহত দুইজনের মধ্যে এক সাধুর মা চেয়ে ছিলেন এই মৃত্যু মামলার তদন্ত করুক সিবিআই। কারণ মহারাষ্ট্র পুলিশের উপর তিনি ভরসা হারিয়ে ছিলেন। তবে, তার দাবি খারিজ করে দিয়ে মহারাষ্ট্র সরকার সুপ্রিম কোর্টে জানিয়ে দিল, এই মামলায় তদন্ত করবে পুলিশ, এখানে সিবিআই তদন্তের প্রয়োজন নেই।

উল্লেখ্য, গত ১৬ই এপ্রিল মহারাষ্ট্র থেকে গুজরাটের সুরাটের উদ্দেশ্যে যাচ্ছিলেন ওই দুই সাধু। তাদের সঙ্গে ছিলেন তাদের গাড়িরচালক। তবে পালঘরের কাছে পৌঁছতেই একদল জনতা তাদের গাড়ি আটকে দাঁড়ায়। তাদের দাবি ছিল, সাধুরা শিশু পাচারকারী। এই অভিযোগের ভিত্তিতে শুধুমাত্র সন্দেহের বশেই উত্তেজিত জনতা গাড়িচালকসহ ওই দুইজন সাধুকে লাঠি দিয়ে মারতে শুরু করে।

খবর পেয়ে অবশ্য ঘটনাস্থলে পৌঁছেছিল পুলিশ। তবে উত্তেজিত জনতা পুলিশকে তোয়াক্কা না করেই তাদের পিটিয়ে মেরে ফেলে। বাধা দিতে গেলে বেশ কয়েকজন পুলিশ কর্মীও আহত হন বলে জানা গেছে। এই নৃশংস হত্যাকাণ্ডের ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছিল। এরপর থেকেই দোষীদের চরম শাস্তির দাবি জানাতে থাকে নেটিজেনরা। পুলিশ তদন্তে নেমে ঘটনার সাথে জড়িত ১৫৪ জনকে গ্রেফতার করে তাদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করে।

তবে, সম্প্রতি ঘটনায় মৃত এক সাধুর মা সংবাদমাধ্যমে অভিযোগ করেন, মহারাষ্ট্র সরকারের পুলিশের ওপর তিনি ভরসা রাখতে পারছেন না। তাই, ঘটনার তদন্তে সিবিআইয়ের হস্তক্ষেপ দাবি করেন তিনি। তার সেই দাবি খারিজ করে সুপ্রিমকোর্টে হলফনামা পেশ করে মহারাষ্ট্র জোট সরকারের জানিয়ে দেয়, ঘটনার যথাযথ তদন্ত করছে পুলিশ। পাশাপাশি ঘটনার সাথে জড়িত পুলিশকর্মীদের বিরুদ্ধেও উপযুক্ত পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে। তাই এই মামলার তদন্তভার সিবিআইয়ের কাছে পাঠানোর কোনো প্রয়োজন নেই বলেই জানিয়ে দিয়েছে মহারাষ্ট্র সরকার।