বাংলা পক্ষের এই পোস্ট ঘিরে সোশ্যাল মিডিয়ায় তুমুল জল্পনা

7
বাংলা পক্ষের এই পোস্ট ঘিরে সোশ্যাল মিডিয়ায় তুমুল জল্পনা

সরকারি হোক আর বেসরকারি, রাজ্যের বিভিন্ন হাসপাতালই তাদের রোগীদের জন্য হাসপাতাল থেকে উপযুক্ত পথ্যের ব্যবস্থা করে। তবে বহু ক্ষেত্রেই কার্যত রোগীরা অনুযোগ করেন যে তাদের উপযুক্ত পথ্য দেওয়া হচ্ছে না। এবার এই সম্পর্কে সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়াতে সাধারণমানুষের রায় নেওয়া হলো।

সোশ্যাল মিডিয়াতে প্রশ্ন করা হয়েছিল যে কোন কোন হাসপাতালে আমিষের বদলে নিরামিষ পথ্য দেওয়া হয় রোগীদের? সেখানেও লেখা হয় যে রোগীর পথ্যের বিষয়টি নির্ধারণ করবে চিকিৎসা বিজ্ঞান। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ নয়। কিছু কিছু হাসপাতালে শুধু আমিষ পথ্যের বদলে নিরামিষ পথ্য দেওয়া হবে কেন?

এই পোস্টের পরিপ্রেক্ষিতে শোরগোল পড়ে গিয়েছে নেট মাধ্যমে। নেটিজেনদের মধ্যে থেকে একদল অবশ্য পোস্টদাতাকে সমর্থন জানিয়েছেন। অপরজন আবার এর বিরোধিতা করছেন। তাদের পাল্টা দাবি, চিকিৎসকেরা রোগীর স্বাস্থ্য বিবেচনা করে তাদের পথ্য নির্ধারণ করেন। তা ছাড়া নিরামিষ পথ্য যে অপুষ্টিকর এমনটাও তো না।

বাংলা পক্ষের তরফ থেকে এই পোস্ট করা হয়েছিল। সংশ্লিষ্ট সংস্থার সাধারণ সম্পাদক গর্গ চট্টোপাধ্যায় বলেন, তাদের কাছে এই নিয়ে অনেক অভিযোগ এসেছে এর আগে। ডাক্তারি শাস্ত্রকে অস্বীকার করে যাঁরা নিজেদের সংস্কার বা কুসংস্কার বাঙালির উপর চাপিয়ে দিতে চাইছেন তাদের বিরুদ্ধে বহু অভিযোগ এসেছেন। রোগীর জন্য ওষুধের সঙ্গে সঙ্গে পথ্যটাও জরুরি।