ধনতেরাসে চাল দিয়ে পূজো করার বেশ কিছু নিয়ম আছে, জানুন

5
ধনতেরাসে চাল দিয়ে পূজো করার বেশ কিছু নিয়ম আছে, জানুন

চলতি বছর ২৩ অক্টোবর পড়েছে ধনতেরাস। ত্রয়োদশীর তিথিতে পালন হয় ধনতেরাস। ধনদেবির পূজা করা হয় এই দিন। যাতে সংসারে সকল অভাব অনটন কেটে গিয়ে সুখ সমৃদ্ধি বৃদ্ধি পায়।

এই বছর ত্রয়োদশী তিথি শুরু হচ্ছে  – ২২ অক্টোবর, ২০২২ তারিখে সন্ধে  ০৬.০২ থেকে ত্রয়োদশী তিথি শেষ হবে – ২৩ অক্টোবর, ২০২২ তারিখে সন্ধে  ০৬.০৩ থেকে।

এই ধনতেরাস উৎসবটি উত্তর ভারতের লোকেরা বেশি পালন করেন তবে আজকাল আমাদের বাংলাতেও অনেকেই এই রীতি পালন করছেন। এই দিন সোনা ও রূপো কেনার একটা রীতি আছে। যারা এসব পারেন না অন্তত তামা বা পিতল এর বাসন পত্র কেনেন।

এছাড়াও এই দিন বিভিন্ন নিয়ম কানুনের মাধ্যমে দেবতাদের অর্ঘ্য দান করা হয়। যেমন যমরাজের উদ্দেশে একটি দ্বীপ দান করা হয় এই দিন। যাতে মৃত্যুর দেবতা যমরাজের ভয় না পেতে হয়।

মা লক্ষ্মীর পূজা করা হয় চাল দিয়ে এইদিন। কিন্তু এই চাল দিয়ে পূজো করার বেশ কিছু নিয়ম আছে।

যেমন –

১. এই দিনে চাল দিয়ে মা লক্ষ্মীর পূজা করলে লক্ষ্মী দেবী প্রসন্ন হন সাথে গণেশ ধনকুবের সকলেরই পূজা করা হয়। অনেকেই আবার ২১ টা চাল মা লক্ষির ঝাঁপিতে ভরে দেন বা যেখানে টাকা রাখা হয় সেখানে রেখে দেন। এতে মনে করা হয় সুখ সমৃদ্ধি বারে।

২. ধনতেরসে একটি তামার পাত্রে সূর্যদেবকে অর্ঘ্য নিবেদন করতে হবে। বিশ্বাস করা হয, এতে ভাগ্যের দোষ কাটে।

৩. ধনতেরসে পুজো করার পর বাড়ির সব সদস্যের কপালে তিলক লাগাতে হবে। এই তিলকে চাল ব্যবহার করলে সৌভাগ্য আসে।

৪. এই দিনে ভগবান শিবকে ৫টি চাল নিবেদন করে ভোলেনাথ প্রসন্ন হন। ধনতেরসের দিন ভগবান শিবকে চাল নিবেদন করলে সব সমস্যার সমাধান হয় বলে বিশ্বাস।

তাই যারা আর্থিক সমস্যায় ভুগছেন আর ভাবছেন কিভাবে এই খারাপ সময় কাটিয়ে উঠবেন তারা এই ভাবে মা লক্ষী ও ধনকুবেরের পূজা করুন। ভালো ফল পাবেন।