লাভ জেহাদীর বিরুদ্ধে নতুন আইন আনল যোগী সরকার, ধর্মান্তকরণ প্রমানিত হলে সর্বোচ্চ ১০ বছরের সাজা

10
লাভ জেহাদীর বিরুদ্ধে নতুন আইন আনল যোগী সরকার, ধর্মান্তকরণ প্রমানিত হলে সর্বোচ্চ ১০ বছরের সাজা

যখন লাভ জেহাদী নিয়ে সব জায়গায় প্রশ্ন উঠছে, সাথে শোনা যাচ্ছে লাভ জেহাদী বিরুদ্ধ আইন আনবে বিজেপি, তখনই উত্তরপ্রদেশে বিবাহের নামে ধর্মান্তরণের বিরুদ্ধে আইন আনল সেই রাজ্যের সরকার। এটা একটা অধ্যাদেশ, সেখানেই বলা হয়েছে যদি ছল চাতুরি করে কেউ ধর্ম পরিবর্তন করেন তাহলে তাদের দেওয়া হবে সর্বোচ্চ সাজা ১০ বছরের জন্য।

গতকাল মঙ্গলবার এই সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়েছে মন্ত্রীসভার বৈঠকে। সেই অধ্যাদেশের মধ্যেই উল্লেখ করা রয়েছে, যদি ধর্মান্তকরণের জন্য কোনো মহিলাকে বিবাহ করা হয় তাহলে সেটাকে বৈধ বলা মানা হবে না। এখানেই শেষ না, কোনো মহিলা যদি নিজে থেকে ধর্ম পরিবর্তন করতে চায় তাহলে তার জন্য তাকে জেলাশাসকের কাছে আবেদন করতে হবে ২ মাস আগে, আর সেটার উপেক্ষা করলেই জরিমানা করা হবে ১০ হাজার ও ৪ মাস থেকে ৩ বছরের সাজা।

মোট কথা কোনোভাবেই জোড় করে ধর্মান্তকরণ করা যাবে না। যদি ইচ্ছা হয় তাহলে সরকারী আইন মেনে সেটাকে বাস্তবায়িত করতে হবে। বিয়ের মাধ্যমে ধর্মান্তকরণ মানেই জরিমানা ও শাস্তি। জোড় করে ধর্মান্তকরন করা হলেই ১-৫ বছরের সাজা ও ১৫ হাজার টাকা জরিমানা। এদিকে আবার তফশিলী জাতির ক্ষেত্রে ৩-১০ বছরের সাজা ও ২৫ হাজার টাকা জরিমানা।

এদিকে আবার দেখা যাচ্ছে সব জায়গায় লাভ জেহাদী নামে এক রব উঠেছে, যেখানে হিন্দু মেয়েকে যদি কোনো মুসলিম ছেলে বিয়ে করে তাহলেই সেটা লাভ জেহাদি আখ্যা পায়। তাদের মতে এটি আসলে হিন্দু মেয়েকে প্রেমের ফাদে ফাসিয়ে ধর্মান্তকরণের উদ্দেশ্যেই এই সব কাজ। এই নিয়ে সব থেকে বেশী যোগী আদিত্যনাথ সরব হয়েছিলেন। বিজেপি শাসিত রাজ্যে লভ জিহাদি আইন আনার পরিকল্পনা করা হচ্ছে। যার মধ্যে রয়েছে হরিয়ানা, মধ্যপ্রদেশ, উত্তরপ্রদেশ।