চাঁদের মাটিতে ভীন গ্রহ প্রানী নাকি কৃত্রিম উপগ্রহের ধবংসাবশেষ? রহস্য ভেদ করলো চিনা রোভার

7
চাঁদের মাটিতে ভীন গ্রহ প্রানী নাকি কৃত্রিম উপগ্রহের ধবংসাবশেষ? রহস্য ভেদ করলো চিনা রোভার

চাঁদের মাটিতে ভীন গ্রহ প্রানীদের বাস? নাকি পৃথিবী থেকে পাঠানো কৃত্রিম উপগ্রহের ধবংসাবশেষ? এই প্রশ্ন নিয়েই একেবারে তোলপাড় বিজ্ঞান মহল। তবে অনেক প্রশ্ন সন্দেহ উত্তেজনার সমাধান ঘটালো একটি চিনা রোভার। আজ্ঞে হ্যা, চিনের মহাকাশ গবেষণা সংস্থা এই নিয়ে একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে, সেখানেই বলা হয়েছে এই নিয়ে।

চায়না ন্যাশনাল স্পেস এডমিনিস্ট্রেশনের অধীনে থাকা একটি চ্যানেল যার নাম অ্যা চাইনিজ ল্যাঙ্গোয়েজ আউটরেক চ্যানেল। সেখানেই তারা জানিয়েছে আসলে চাঁদের বুকে থাকা রহস্যময় কুড়ে ঘর নিয়ে। দূর থেকে দেখেই বিজ্ঞানীরা অনুমান করেছিল হয়ত কোনো ভীন গ্রহের প্রানীর বানানো কুড়ে ঘর। আবার কেউ কেউ দাবি করেছিল তাঁবুও হতে পারে। কিন্তু এইসব অনুমানকে ভুল প্রমাণ করে চিনা রোভার তার উত্তর দিয়েছে।

আসলে চাঁদের বুকে ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা অজস্র বোল্ডার, তার মধ্যে বড় সাইজের একটি বোল্ডারকে দূর থেকে কুড়েঘরের ন্যায় দেখতে লেগেছে বিজ্ঞানীদের।

চিনের তরফ থেকে যে মিশন ডায়েরি প্রকাশ করা হয়েছে, সেখানে লেখা হয়েছে, রহস্যময় কুড়ে ঘর নিয়ে বিজ্ঞানীদের মহলে যে উত্তেজনার সৃষ্টি হয়েছিল সেটা একেবারেই কমে যায় সেই ছোট জিনিসটিকে দেখে। যে বোল্ডারটিকে সবাই কুড়ে ঘর ভেবে ভুল করছিলো, সেটাকেই এবার খতিয়ে দেখা হচ্ছে। আসলে সেটা চাদেরই পাথর বা গ্রহাণু থেকে ছিটকে আসা কোনও অংশ।
তবে প্রথম দিকে ভাঙ্গা কোনো কৃত্রিম গ্রহকেও অনুমান করা হয়েছিল, তার অংশও হতে পারে। কারণ ২০১৮ সালে ৮ ডিসেম্বর একটি চিনা মহাকাশ যান ভেঙ্গে পড়েছিল চাঁদের বুকে। পরে অবশ্য রহস্যের সমাধান মেলে গত বছর নভেম্বর মাসে ও তথ্য প্রকাশ করা হয় ডিসেম্বরে।