তৃণমূলের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ তুলে সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হলেন মহিলারা

16
তৃণমূলের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ তুলে সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হলেন মহিলারা

একুশের নির্বাচনের পর থেকেই রাজ্যজুড়ে ভোট-পরবর্তী হিংসার ঘটনা ক্রমশ প্রকাশ্যে আসছে। বিজেপি দলের নেতাকর্মীরা তৃণমূলের বিরুদ্ধে ভোটের ফলাফল ঘোষণার পর থেকেই তাদের উপর অত্যাচারের অভিযোগ তুলছেন। তৃণমূলীয় দুষ্কৃতীদের ভয়ে ঘর ছাড়া বিজেপি কর্মীদের একাধিক পরিবার। তবে এবার তৃণমূল কর্মী সমর্থকদের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ তুললেন বিজেপি মহিলা সমর্থকরা।

সম্প্রতি তাদের উপর হওয়া অত্যাচারের প্রতিবাদ জানাতে সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হয়েছেন মহিলারা। গোধরা কাণ্ডের পর শীর্ষ আদালতের তরফ থেকে নেওয়া পদক্ষেপের কথা উল্লেখ করে নির্যাতিতা মহিলারা সুপ্রিম কোর্টের তত্ত্বাবধানে তাদের উপর হওয়া অন্যায়-অত্যাচারের বিচার চেয়েছেন। বাংলায় হওয়া গণধর্ষণের সঠিক তদন্তের জন্যে এস আই টি গঠনের দাবি জানিয়েছেন তারা।

নির্যাতিতা মহিলাদের মধ্যে একজনের ৬০ বছর বয়সী মহিলাও রয়েছেন। তিনি যে অভিযোগ তুলেছেন তা ভয়াবহ। তিনি জানাচ্ছেন নির্বাচনী ফল প্রকাশের পরে ৪-৫ই মে রাতের সময় আচমকা তার বাড়িতে ৪-৫ জন তৃণমূল দুষ্কৃতীর ঢুকে পড়েন। বাড়িতে লুটপাট চালানোর পাশাপাশি তাকে এবং তার ছয় বছর বয়সী নাতনিকে ধর্ষণ করেছে তারা! এমনটাই অভিযোগ ওই মহিলার। এছাড়াও আরও এক ১৭ বছর বয়সী নাবালিকাও তৃণমূল কর্মী সমর্থকদের বিরুদ্ধে এই অভিযোগ তুলেছেন।

ওই বৃদ্ধা মহিলার অভিযোগ, খেজুরি বিধানসভা কেন্দ্রে বিজেপি প্রার্থী জয়লাভ করতেই ১০০ থেকে ২০০ তৃণমূল কর্মী তাদের বাড়ি ঘিরে ফেলে এবং বাড়ি বোমা মেরে উড়িয়ে দেওয়ার হুমকি দেয়। যে কারণে প্রাণ ভয়ে তাদের পালিয়ে যেতে হয়েছিল। ওই বৃদ্ধ মহিলা এবং নাবালিকার অভিযোগ পুলিশের কাছে তারা ঘটনার পর অভিযোগ জানাতে গেলেও পুলিশ তাদের অভিযোগ নেয় নি। যে কারণে রাজ্যের বাইরে মামলার ট্রায়ালের আবেদন জানিয়েছেন তারা।