গায়ে হলুদ ভুলে খেলা দেখায় মত্ত পাত্র সহ গোটা পরিবার, পাত্রীর বাড়ি দেরিতে পৌছাল ছেলের গায়ে লাগানো হলুদ

9
গায়ে হলুদ ভুলে খেলা দেখায় মত্ত পাত্র সহ গোটা পরিবার, পাত্রীর বাড়ি দেরিতে পৌছাল ছেলের গায়ে লাগানো হলুদ

গত মঙ্গলবার ছিল ক্রিকেটের জগতে এক অনবদ্য লড়াইয়ের দিন ছিল। সেই লড়াই এ টেস্ট সিরিজ ছিনিয়ে নেয় ইন্ডিয়ার ক্রিকেট টিম। খেলা দেখার জন্য টিভির পর্দাতেই চোখ রেখেছিল ক্রিকেট প্রিয় সমস্ত ভারতবাসী। খেলা দেখতে ভোলেননি বোলপুরেরই বিয়ের পাত্র সৌহার্দ্য সামন্ত ও তাঁর পরিবার। পাত্র পূর্তদফতরের সাব অ্যাসিস্ট্যান্ট ইঞ্জিনিয়ার, সৌহার্দ্য সামন্ত ও তার পরিবারের হলেন খেলা পাগল। এ দিনের খেলায় চোখ রাখতে গিয়ে তারা বিয়ের গায়ে হলুদ টা কি ভুলে গেলেন। তবে ফলো হাতেনাতে পেলেন এদিন ক্রিকেট ম্যাচে জয়লাভ করেছে ইন্ডিয়া টিম।

এদিন বীরভূমের বােলপুরের অধ্যাপকপল্লিতে সকাল থেকেই সৌহার্দ্যের বিয়ের যেমন তোড়জোড় চলছিল তেমনি চলছিল ক্রিকেট দেখার তড়িঘড়ি। পাত্রের মা গায়ে হলুদে বসার জন্য তাগাদা দিলেও ক্রিকেট প্রিয় পাত্রটি সেইদিকে কর্ণপাতই করেন না। এদিকে আবার পাত্রীর বাড়ি থেকেও ফোন আছে কারণ পাত্রের গায়ে মাখা হলুদ পাত্রীর বাড়িতে না পাঠালে পাত্রীরও গায়ে হলুদ হবেনা। ভারতের রান যখন ৫ উইকেটে ৩১৮। তখন ভারতের জন্য প্রয়োজন ২৬ বলে ১০ রান। সহজেই এই রান হয়ে যাবে বলে পাত্রের পরিবারের সকলেই উচ্ছসিত ছিল। তখন ব্রাম্ভন ডাক দিলো যে গায়ে হলুদের লগ্ন পেরিয়ে যাচ্ছে। এরপর স্ট্রেট ড্রাইভে রিষভ পন্থ বাউন্ডারি হাঁকাতেই উল্লাসে ফেটে পড়লেন সকলে।

ভারতীয় টিম ম্যাচে জেতার পর বিয়ের পাত্র বলেন এই ঐতিহাসিক দিনে আমার বিয়ে হল এটি সারা জীবন মনে থাকবে। এই ক্রিকেটের ম্যাচ জেতার জন্য বাথরুম দ্বিগুণ আনন্দে গায়ে হলুদ মাখলে। অবশেষে দেরি হলেও পাত্রীর বাড়িতে ছেলের গায়ে লাগানো হলুদ পৌঁছালো।