বামেদের ডাকা বনধ পালনে মোটেই আগ্রহী নয় পশ্চিমবঙ্গ সরকার

5
বামেদের ডাকা বনধ পালনে মোটেই আগ্রহী নয় পশ্চিমবঙ্গ সরকার

আজ ২৬শে নভেম্বর। বামফ্রন্টের আহবানে সারা দেশের ট্রেড ইউনিয়ন এবং কৃষক সংগঠনগুলি একযোগে বনধ ঘোষণা করেছে। সেইমতো সারা দেশজুড়ে প্রস্তুতি নেওয়া হচ্ছে। তবে পশ্চিমবঙ্গ সরকার বামেদের ডাকা বনধ পালনে মোটেই আগ্রহী নয়। তাই বৃহস্পতিবার সকাল থেকেই যাতে পশ্চিমবঙ্গের জনজীবন স্বাভাবিকভাবেই সচল থাকে, তা নিশ্চিত করতে বদ্ধপরিকর রাজ্য সরকার। রাজ্য সরকারের তরফ থেকে বনধের বিরোধিতায় সব রকম পদক্ষেপ গ্রহণ করা হচ্ছে।

উল্লেখ্য, সিটু আইএনটিইউসির মতো কেন্দ্রীয় সংগঠন গুলি বনধ পালনে বদ্ধপরিকর। তাদের কড়া নির্দেশ, ধর্মঘট পালনে বাধা দেওয়ার চেষ্টা করা হলে দলের তরফ থেকে সব রকম ভাবে বিরোধিতা করা হবে। অর্থাৎ, বনধ পালন করা নিয়ে রাজ্য সরকার এবং সিটুর কেন্দ্রীয় নেতৃত্বদের মধ্যে জোর তরজা চলছে। রাজ্য সরকারের কড়া নির্দেশ, ২৬শে নভেম্বর সারা রাজ্যে সমস্ত সরকারি পরিষেবা বজায় থাকবে।

নবান্নের তরফ থেকে প্রকাশিত একটি নির্দেশিকায় জানানো হয়েছে, বনধের দিন সরকারি এবং আধা সরকারি দপ্তর গুলিতে সকল সরকারি কর্মচারীদের উপস্থিতি বাধ্যতামূলক। শুধু তাই নয়, বামেদের ডাকা বনধের দিন সরকারি যানবাহন পরিষেবা অন্যান্য স্বাভাবিক দিনের মতোই থাকবে। রাজ্য সরকারের নির্দেশ অনুযায়ী এ রাজ্যে বনধের প্রভাব তেমন পড়বে না বলেই মনে করা হচ্ছে।